আকাশে দ্বিতীয় সূর্য, নিবিরু আসছে!

মায়া সভ্যতার বর্ণনা মতে, সৌরজগতের রহস্যময় গ্রহ নিবিরু একটি নির্দিষ্ট সময় পর পর পৃথিবীর খুব কাছ দিয়ে পদক্ষিণ করে। সূর্যকে পদক্ষিণের জন্য গ্রহটির কক্ষপথ এমনভাবে রয়েছে যা পৃথিবীর জন্য অভিশাপ বয়ে আনে। মায়াদের বর্ণনায় রয়েছে, নিবিরু খুব কাছে চলে আসলে কক্ষপথ থেকে পৃথিবী কিছুটা সরে যায়। ফলে গ্রহটিতে দেখা দেয় ভয়াবহ দুর্যোগ। ভূমিকম্প, ঝড় ও জলচ্ছ্বাসের প্রভাবে হুমকির মুখে পড়ে মানব সভ্যতা।

মায়াদের সেই ক্যালেন্ডারের সুত্র ধরে গত ক’বছর যাবৎ রহস্যময় সেই গ্রহ আলোচনায় উঠে এসেছে। একদল মনে করেন, মায়াদের হিসেবে সামান্য ভুল থাকলেও প্ল্যানেট এক্স বা রহস্যময় নিবিরু গ্রহ পৃথিবীর জন্য একদিন সত্যিই হুমকির কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

অবশ্য অপর পক্ষ, নিবিরু’র অস্তিত্বই স্বীকার করতে চান না। তাদের দাবি, নিবিরু বা প্ল্যানেট এক্স বলে কিছু নেই। এসব মায়ান সভ্যতার কল্পনার ফসল।

তবে নিবিরু বিশ্বাসীরা হাল ছাড়তে নারাজ। তারা মহাকাশ পর্যবেক্ষণ আর দূর নক্ষত্রের আলোর তারতম্য পরীক্ষা করে দাবি করছেন, এরই মধ্যে রহস্যময় গ্রহটি সৌরজগতে প্রবেশ করেছে। যে কোনো সময় সেটি পৃথিবীর খুব কাছে চলে আসবে।

তবে অবিশ্বাসীদের দাবি, নিবিরু সৌরজগতে প্রবেশ করে পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসলে তা খালি চোখেই দেখা যেত। কিন্তু আমরা তা  দেখছি না। এই কথাকেই মিথ্যে প্রমাণ করতে সম্ভবত পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে নিবিরু সদৃশ গ্রহ দেখার ভিডিওসহ নানা দাবি উঠছে।

তাদের দাবি হচ্ছে, দিনের আকাশে অতি পরিচিত সূর্যের বাইরেও উজ্জ্বল গোলোক তারা দেখতে পাচ্ছেন। ক্রমেই তা আকারে বড় হচ্ছে।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক’এ এমনই একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায়, দিনের আকাশে চির চেনা সূর্যের বাইরেও জ্বলছে আরও একটি আগুনের গোলক।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি স্টার এক প্রতিবেদনে জানায়, মে মাসের ১৬ তারিখে ভিডিওটি ধারণ করা হয়। সূর্যের কাছ থেকে অনেকটা দূরে স্পষ্টভাবেই সেই আগুনের গোলকটি দেখা যাচ্ছিল।

ভিডিওটি ফেসবুক’এ প্রকাশের পর পরই প্রায় ১৪ হাজার বার তা দেখা হয়ে যায়। অনেকেই নিবিরু গ্রহ সম্পর্কে শক্তিমান দেশগুলোকে গুরুত্ব দেয়ার আহ্বান জানান।

অবশ্য ভিডিওটি যুক্তরাজ্যের ঠিক কোথায় ধারণ করা হয়েছে সে ব্যাপারে প্রতিবেদনে কিছু বলা হয়নি।