আফগানিস্তানে আত্মঘাতি হামলায় নিহত ৪৮

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি শিক্ষা কেন্দ্রের সামনে আত্মঘাতি বোমা হামলায় নিহত হয়েছেন কমপক্ষে ৪৮ জন। আফগানিস্তানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ ঘটনা নিশ্চিত করেছে। বুধবার রাজধানীর পশ্চিমাংশে এ ঘটনা ঘটে। এখন পর্যন্ত কেউ এ হামলার দায় স্বীকার করে নি। এ খবর দিয়েছে অনলাইন আল-জাজিরা।
খবরে বলা হয়েছে, কাবুলের পশ্চিমাঞ্চলে দাশত-ই-বারচি এলাকায় একটি কোচিং সেন্টারের পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় বিস্ফোরণ ঘটায় হামলাকারী। প্রথমে মনে করা হয়েছিল, আরো সন্ত্রাসী কাবুলে আক্রমণ করার জন্য এসেছে।

আফগানিস্তানের সেনারা সেভাবেই প্রস্তুত হচ্ছিল। পরে কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন, হামলাকারী একাই এ হামলা পরিচালনা করেছে। পুলিশের মুখপাত্র হাসমাত স্তানিকজাই বলেছেন, আমরা নিশ্চিতভাবে বলছি হামলাকারী একাই পায়ে হেটে এ হামলা করেছে। শিক্ষাকেন্দ্রের ভেতরে ঢুকেই সে বোমা বিস্ফোরণ করে। শিক্ষাকেন্দ্রে ছেলে ও মেয়ে শিক্ষার্থীরা একসঙ্গে ক্লাস করত। এ কারণেই শিক্ষার্থীদের টার্গেট করে এ হামলা চালানো হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।
এ ঘটনার পর এক বিবৃতিতে আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত কেউ এ হামলার দায় স্বীকার করেনি। এ সময় তিনি এ হামলার নিন্দা জানান। স্থানীয় শিয়া নেতা জাওয়াদ গাওয়ারি বলেছেন, হামলার ধরণ দেখে মনে হচ্ছে ইসলামিক স্টেটের জঙ্গিরাই এ হামলা চালিয়েছে। তারা মসজিদ, শিক্ষাকেন্দ্র ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রগুলোকে টার্গেট করেই হামলা পরিচালনা করে। তিনি আরো বলেছেন, গত বছর শুধু কাবুলের শিয়াদের টার্গেট করেই ১৩ টি হামলা হয়েছে। বুধবারের হামলার অল্প সময়ের মধ্যেই তালেবান মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ নিশ্চিত করেছে, তালেবান এ হামলার সঙ্গে জড়িত নয়।