আমি জীবন দিয়ে হলেও আপনাদের পাশে থেকে খুলনার উন্নয়ন করবো

সদর ও সোনাডাঙ্গা থানার বর্ধিত সভায় নবনির্বাচিত মেয়র খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও নবনির্বাচিত মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় সকলকে ত্যাগ স্বীকার করতে হবে। ত্যাগের মহিমায় উদ্ভাসিত হয়ে এক মুসলমান অন্য মুসলমান ভাইয়ের প্রতি সহমর্মিতা জানাতে হবে। সেজন্যে ত্যাগই উত্তম পথ। তিনি আরো বলেন, আপনাদের সর্বোত্তম ত্যাগের কারণেই আজ খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদ ফিরে পেয়েছি। এই ত্যাগ ধরে রেখে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে চতুর্থ বারের মত রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এনে উন্নয়নের ধারাবাহিকতাকে টিকিয়ে রাখতে হবে। সকল প্রতিকূলতাকে উপেক্ষা করে ঐক্যবদ্ধ হয়ে বিএনপি জামায়াতের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। তিনি দলের নেতাকর্মী এবং নগরবাসির উদ্দেশ্যে বলেন, আমাকে ভোট দিয়ে আপনারা কৃতজ্ঞতায় পাশে আবদ্ধ করেছেন। আমি জীবন দিয়ে হলেও আপনাদের পাশে থেকে খুলনার উন্নয়ন করে যাবো।
শনিবার বিকাল ৪টায় আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সদর ও সোনাডাঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
সদর থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি এ্যাড. মো. সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও ১৪ দলের সমম্বয়ক আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান এমপি। সোনাডাঙ্গা থানা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক তসলিম আহমেদ আশার পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগ নেতা শেখ সিদ্দিকুর রহমান, এমডিএ বাবুল রানা, জামাল উদ্দিন বাচ্চু, মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, এ্যাড. অলোকা নন্দা দাস, অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু, মো. জাহাঙ্গীর হোসেন খান, মাহাবুবুল আলম বাবলু মোল্লা, নবনির্বাচিত কাউন্সিলর ফকির মো. সাইফুল ইসলাম ও আমেনা হালিম বেবী, টিএম আরিফ, ফেরদৌস হোসেন লাবু, মঈনুল ইসলাম নাসির, চ. ম মুজিবর রহমান, চৌধুরী মিনহাজ উজ্জামান সজল, মুন্সি আইয়ুব আলী, জামিরুল হুদা জহর, শেখ মো. ফারুক হোসেন, নুর ইসলাম, শেখ আবিদ উল্লাহ, আব্দুল হাই পলাশ, আতাউর রহমান শিকদার রাজু, ইউসুফ আলী খান, সরদার আব্দুল হালিম, শেখ এশারুল হক, মো. শিহাবউদ্দিন, মো. জাকির হোসেন, গোপাল চন্দ্র সাহা, মহাসিনুর রহমান আফরোজ, শেখ মো. রুহুল আমিন, মো. রাজ্জাক হোসেন, এ্যাড. বিরেন্দ্র নাথ সাহা, মো. রুহুল আমিন, মো. মোক্তার হোসেন, এমরানুল হক বাবু, এস এম শামছুদ্দিন আহমেদ শ্যাম, আব্দুর রাজ্জাক, সেলিম মুন্সি, তোতা মিয়া, আলী আকবর, আবুল হোসেন, হাবিবুর রহমান দুলাল, জিয়াউদ্দিন আহমেদ রানা, সমশের আলী দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
সভায় ৩১ মে সদর থানা আওয়ামী লীগের ইফতার মাহফিল করার সিদ্ধান্ত হয়। এছাড়া সদর ও সোনাডাঙ্গা থানা ১৬টি ওয়ার্ডে ইফতার মাহফিল আয়োজনের সিদ্ধান্ত হয়।