আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে নির্মাণ হচ্ছে খুলনার প্রথম মডেল মসজিদ

এ এইচ হিমালয়:: খুলনা বিভাগের প্রথম মডেল মসজিদ নির্মাণ হচ্ছে খুলনার আলিয়া মাদ্রাসায়। ইতোমধ্যে মসজিদ এলাকার মাটি পরীক্ষা ও সাইট প্লান সম্পন্ন হয়েছে। ঈদের আগেই মসজিদ নির্মাণের দরপত্র আহ্বান করতে যাচ্ছে গণপূর্ত বিভাগ-১। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী আগস্ট মাস থেকে মসজিদের নির্মাণ কাজ শুরু হতে পারে। চার তলা বিশিষ্ট মসজিদটি নির্মাণে ব্যয় হবে প্রায় ১৫ কোটি টাকা। গত ৩ মার্চ প্রধানমন্ত্রী এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।
প্রকল্প থেকে জানা গেছে, পাঁচতলা উচ্চতার ভবনটি শুধু একটি মসজিদ নয়, মসজিদ কমপ্লেক্স হবে। এর মধ্যে নারীদের জন্য পৃথক অজুখানা ও নামাজের ব্যবস্থা, ইমামদের প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, হজ্বের মৌসুমে হাজীদের থাকা ও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা, লাইব্রেরি, গবেষণা কেন্দ্র, ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, মেহমানদের আবাসন ও বিদেশি পর্যটকদের পরিদর্শন, একটি বড় মিলনায়তন এবং ইসলামী ফাউন্ডেশনের কার্যালয় থাকবে।
সূত্র জানায়, দেশের প্রতিটি উপজেলায় একটি করে মডেল মসজিদের নির্মাণের উদ্যোগ নেয় সরকার। কিন্তু অর্থায়ন জটিলতায় সেই প্রকল্প পিছিয়ে যায়। পরে প্রথম পর্যায়ে ৮টি বিভাগীয় শহরে একটি করে মডেল মসজিদ নির্মাণের উদ্যোগ নেয় সরকার। খুলনার মডেল মসজিদটি আলিয়া মাদ্রাসার ভেতরে নির্মাণের জন্য স্থান চূড়ান্ত করা হয়েছে।
৮টি বিভাগীয় শহরে মডেল মসজিদ নির্মাণ প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক লুৎফর রহমান জানান, ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্ট জেলাগুলোতে মসজিদ নির্মাণের জন্য স্থান চূড়ান্ত হয়ে গেছে।গণপূর্ত বিভাগের জেলা কার্যালয় এসব নির্মাণ কাজ তদারিক করবেন।
গণপূর্ত বিভাগ-১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী মুহাম্মদ জাকির হোসেন পূর্বাঞ্চলকে বলেন, সাইট প্লান তৈরি করে আমরা ঢাকায় পাঠিয়েছি। মাটি পরীক্ষাও সম্পন্ন হয়েছে। আশা করছি ঈদের আগেই মডেল মসজিদের দরপত্র আহ্বান করা যাবে। দরপত্র প্রক্রিয়া শেষ করে আগস্টের আগেই কাজ শুরু হবে।
ইসলামী ফাউন্ডেশনের খুলনা বিভাগীয় পরিচালক শাহীন বিন জামান বলেন, মডেল মসজিদ ইসলামী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলা হবে। এখানে ইসলামী গবেষণাসহ সব ধরনের ধর্মীয় কাজ করা হবে। মডেল মসজিদ নির্মাণের ফলে খুলনায় ইসলাম প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।