আ’লীগ মেয়র প্রার্থী তালুকদার আবদুল খালেকের প্রেসব্রিফিং

বিএনপি অসত্য কথা বলে নগরবাসীকে বিভ্রান্ত করছে, আওয়ামী লীগ মনোনীত ও ১৪দল সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, সিটি নির্বাচনে বিএনপি অসত্য কথা বলে নগরবাসীকে বিভ্রান্ত করার করছে। তারা বিশেষ এজেন্ড নিয়ে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মাঠে নেমেছে। অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হতে দেবে না বলে পায়ে পাড়া দিয়ে গোলমাল সৃষ্টি করতে চাইছে। বিএনপি ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করার অপচেষ্টা করছে। পাঁচ বছর উন্নয়ন বঞ্চিত নগরবাসী আর মিথ্যাচারে কান দেবে না।
বুধবার বেলা দেড়টায় দলীয় কার্যালয়ে এক প্রেসব্রিফিং-এ তিনি এসব কথা বলেন।
তালুকদার খালেক বলেন, চরমপন্থী আর সর্বহারাদের ঘাড়ে সওয়ার হয়ে ২০০১ সালে বিএনপি জামায়াত ভোট কেটে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এসেছিলো। তারা ক্ষমতায় গিয়ে এদেশের সাধারণ মানুষের উপর নির্মম নির্যাতন, হত্যা, অগ্নিসংযোগ, লুটপাট করে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষকে গৃহহারা করেছিলো। বিএনপি নেতৃবৃন্দ নিজেরা যেমনটি করেছিলো অন্যকেও তেমন মনে করছে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ একটি গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল। এ দলের নেতাকর্মীরা নির্বাচনের সকল ধরনের প্রস্তুতি নিতে পারে। কিন্তু বিএনপি পরাজয় হলেই সেখানে কারচুপির গন্ধ খুঁজতে থাকে। তিনি সাংবাদিকদের সহযোগিতা কামনা করে বলেন, খুলনার উন্নয়ন এবং আগামী প্রজন্মের কথা মাথায় রেখে বস্তুনিষ্ঠ সঠিক ও সত্য সংবাদ পরিবেশন করে খুলনাবাসীর পাশে থাকুন। তিনি বিএনপি’র মিথ্যাচারের প্রতিবাদ করে বলেন, খুলনা সিটি নির্বাচন অত্যন্ত অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। ভোটাররা যখন বিএনপি’র থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। ঠিক তখনই সিটি নির্বাচনকে বিতর্কিত করতে বিএনপি ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। বিএনপি’র নেতারা নির্বাচনকে বানচাল করতে জঘন্য ইস্যু সৃষ্টি করার অপচেষ্টা করছে। তিনি বলেন, খুলনা সিটি নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে। এ নির্বাচন আনন্দমুখর পরিবেশেই অনুষ্ঠিত হবে। কেউ এই নির্বাচনকে বানচাল করার অপচেষ্টা করলে তা’ কঠোরভাবে প্রতিহত করা হবে। তিনি প্রশাসনের উদ্দেশ্যে বলেন, মানুষের নিরাপত্তা দেয়াই সরকার এবং আপনাদের দায়িত্ব। মানুষের নিরাপত্তা এবং নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে নগরীর চিহ্নিত চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসায়ী, সন্ত্রাসী তাদের গ্রেফতার অব্যাহত রাখুন। তিনি সকল ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করতে দলের নেতাকর্মী এবং সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান।
খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ, আওয়ামী লীগ কেন্দ্রিয় নির্বাহী কমিটির ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, নির্বাহী সদস্য কেসিসি নির্বাচনে তালুকদার আব্দুল খালেকের প্রধান নির্বাচন সমন্বয়কারী এস এম কামাল হোসেন, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইসহাক আলী খান পান্না, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক কাজি আমিনুল হক, মহানগর জাসদ সভাপতি রফিকুল হক খোকন, আওয়ামী লীগ নেতা সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু, আকতারুজ্জামান বাবু, মকবুল হোসেন মিন্টু, মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, জোবায়ের আহমেদ খান জবা, মো. জাহাঙ্গীর হোসেন খান, মফিদুল ইসলাম টুটুল,এ্যাড. মো. সাইফুল ইসলাম, অসিত বরণ বিশ্বাস,জয়দেব নন্দী,মোজাম্মেল হক হাওলাদার,এস এম আসাদুজ্জামান রাসেল, সৌমেন বোস, হোসেনুজ্জামান হোসেন, সাঈয়েদুজ্জামান স¤্রাট প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।