ইসি’র তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি খুলনায় আসছেন আজ

খুলনা সিটি কর্পোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনে কী ধরনের অনিয়ম হয়েছে তা তদন্ত করতে নির্বাচন কমিশনের (ইসির) তিন সদস্যের একটি কমিটি আজ সোমবার খুলনায় আসছেন। রবিবার বিকেলে দু’জন নির্বাচন কমিশনার ও ইসির কয়েকজন কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে এই তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ইউনুচ আলী বলেন, ‘তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি আগামীকাল (আজ) রওনা দেবে ঢাকা থেকে। আগামী ২২ ও ২৩ মে তদন্ত কমিটির সদস্যরা স্থগিত হওয়া তিনটি ভোটকেন্দ্র সম্পর্কে বিস্তারিত তদন্ত করবেন। এ ছাড়া আরো অনেক বিষয়ে তদন্ত হবে। তবে এখুনি তা বলা যাচ্ছে না।’
ইউনুচ আলী বলেন, তদন্ত কমিটিতে রয়েছেন ইসির যুগ্ম সচিব খন্দকার মিজানুর রহমান, উপ-সচিব ফরহাদ হোসেন এবং সিনিয়র সহকারী সচিব শাহ আলম।
এই ব্যাপারে জানতে চাইলে কেসিসির নির্বাচনের প্রধান সমন্বয়কারী ইসির যুগ্ম-সচিব মোঃ আবদুল বাতেন বলেন, তদন্ত কমিটির সদস্যরা খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের সামগ্রিক অনিয়ম নিয়ে তদন্ত করবেন। কোথায় কোথায় অনিয়ম হয়েছে তার বিস্তারিত জানবেন।
আবদুল বাতেন আরো বলেন, ‘গণমাধ্যমে কী ধরনের অনিয়মের চিত্র উঠে এসেছে তার সত্যতা কতটুকু, নির্বাচনে অনিয়মগুলো কারা করেছেন এবং কীভাবে করেছেন এসব কিছুর বিস্তারিত তদন্ত করবেন তাঁরা। এ ছাড়া স্থগিত হয়ে যাওয়া ভোটকেন্দ্র নিয়ে তদন্ত করবে তদন্ত কমিটি।’
এ সব ব্যাপারে জানতে চাইলে নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘মূলত স্থগিত হয়ে যাওয়া কেন্দ্রগুলোকে তদন্ত কমিটি বেশি প্রধান্য দিবে। এ ছাড়া বিভিন্ন গণমাধ্যম থেকে আমরা তথ্য সংগ্রহ করেছি এবং সেসব বিষয়ে তদন্ত করা হবে পর্যালোচনার করার জন্য। কারা দায়ী বা কীভাবে এসব ঘটল সে সবের তদন্ত করা হবে।’
এসব নিয়ে কথা হয় নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানমের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘যদি কোনো ভোটকেন্দ্রের ব্যালট পেপারে সিল মারা নিয়ে অনিয়ম হয় এবং তা যদি কাউন্সিলরদের ফলাফল পরিবর্তনের জন্য যথেষ্ট হয় তবে আমরা সেগুলো পুনরায় বিবেচনা করার চেষ্টা করব।’
নাম না প্রকাশ করার শর্তে ইসির একজন যুগ্ম-সচিব বলেন, ‘কেন্দ্রে ফুকে ব্যালটে অন্যায়ভাবে সিল মারা, জালভোট দেওয়া, ভোটারদের ভোট আগেই দেওয়া হয়ে যাওয়া, বিএনপি’র এজেন্টদের বের করে দেওয়া, ভোট স্থগিত হয়ে যাওয়াসহ আরো অনেক বিষয়ে তদন্ত করবে ইসির তদন্ত কমিটির প্রতিনিধিদলটি।’