উপজেলায় প্রথম ধাপে নির্বাচন ১০ই মার্চ

আসন্ন পঞ্চম উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে আগামী ১০ই মার্চ প্রথম ধাপে ৮৭টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। মনোনয়ন দাখিলের তারিখ ১১ই ফেব্রুয়ারি, যাচাই-বাছাই ১২ই ফেব্রুয়ারি এবং প্রত্যাহার ১৯শে ফেব্রুয়ারি। গতকাল বিকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে    কমিশনের ৪৫তম সভা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। তিনি বলেন, পাঁচটি ধাপে উপজেলা পরিষদের ভোট অনুষ্ঠিত হবে।

প্রথম ধাপে আগামী ১০ই মার্চ চার বিভাগের ১২টি জেলার ৮৭টি উপজেলায়  ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া দ্বিতীয় ধাপে ১৮ই মার্চ, তৃতীয় ধাপে ২৪শে মার্চ ও চতুর্থ ধাপে ৩১শে মার্চ ভোটগ্রহণের তারিখ ঠিক করেছে নির্বাচন কমিশন। আর পঞ্চম ও শেষ ধাপে ভোটের সম্ভাব্য তারিখ পবিত্র ঈদুল ফিতরের পর ১৮ই জুন। ইসি সচিব বলেন, প্রথম ধাপের ভোটে রংপুর বিভাগের পঞ্চগড় জেলার সব উপজেলা, কুড়িগ্রাম জেলার সবগুলো, নীলফামারী জেলার সবগুলো, লালমনিরহাট জেলার সবগুলো ও রংপুর জেলার সব উপজেলায় ভোটগ্রহণ হবে।

ময়মনসিংহ বিভাগের নেত্রকোনার আটপাড়া উপজেলা বাদে বাকি সব  উপজেলা, জামালপুর জেলার সবক’টি উপজেলায় ভোট অনুষ্ঠিত হবে।

এ ছাড়াও সিলেটের সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর বাদে সবক’টি উপজেলায়, হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা বাদে সব উপজেলায় ভোট হবে। রাজশাহী বিভাগের সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ উপজেলা বাদে বাকি সব উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। জয়পুরহাট জেলার সবক’টি উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নাটোরের নলডাঙ্গা বাদে বাকি সব উপজেলায় নির্বাচন হবে এবং রাজশাহী জেলার সব উপজেলায় নির্বাচন হবে। ভোটে প্রার্থী হতে স্থানীয় সরকারের লাভজনক সকল পদ থেকে পদত্যাগ করতে হবে বলেও জানান ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ। অন্যদিকে, একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা আসনের ভোট আগামী ৪ঠা মার্চ অনুষ্ঠিত হবে।