কে জিতবে আজ—ইংল্যান্ড না বেলজিয়াম?

রাশিয়ার বিশ্বকাপের গ্রুপ ‘জি’তে পড়েছিল ইংল্যান্ড ও বেলজিয়াম। গ্রুপপর্বে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল দুই দল। কালিনিনগ্রাদের ওই ম্যাচের আগেই নক আউটপর্ব নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল তাদের। তাই শেষ ম্যাচটি ছিল গ্রুপচ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াই। কিন্তু সেই ম্যাচে ১-০ গোলে হেরে গ্রুপ রানার্স আপ হয় ইংলিশরা। এ হার নিয়ে ওঠে গুঞ্জন। সেমি ফাইনালে ব্রাজিলকে এড়াতেই নাকি ওই ম্যাচে জেতার চেষ্টা করেনি ইংলিশরা। কিন্তু শনিবার আবার মুখোমুখি দুই দল। এবার তৃতীয়স্থান নির্ধারণী ম্যাচ। আজ কি জয়ের জন্য খেলবে ইংলিশরা? মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

রাশিয়ার বিশ্বকাপের ফেভারিটদের তালিকায় ছিল না ইংল্যান্ড ও বেলজিয়ামের নাম। তবে টুর্নামেন্টের ‘ডার্ক হর্স’ ছিল দল দুইটি। সোনালি প্রজন্মের এক ঝাঁক খেলোয়াড় নিয়ে বিশ্বকাপে গিয়েছিল তারা। ফাইনালে উঠতে না পারলেও দারুণ সফল এক টুর্নামেন্ট পেরিয়ে দুই দলই এখন ইতিহাসের সামনে।

বেলজিয়াম কখনও শিরোপার স্বাদ পায়নি। বিশ্বকাপে দলটি সর্বোচ্চ সাফল্য পেয়েছিল ১৯৮৬ সালে। সেবার চতুর্থ হয়েছিল দল, তৃতীয়স্থান নির্ধারণী খেলায় ফ্রান্সের কাছে হেরে। এবার সেমি ফাইনালে সেই ফ্রান্সের কাছে হেরেই দ্বিতীয়বারের মতো তৃতীয়স্থান নির্ধারণী ম্যাচ খেলবে লুকাকু-হ্যাজার্ডদের বেলজিয়াম। তাদের সামনে ৮৬’র ইতিহাসকে ছাড়িয়ে যাওয়ার লড়াই।

অন্যদিকে বিশ্বকাপে একবারই ফাইনালে উঠেছিল ইংল্যান্ড। ১৯৬৬ সালে প্রথম ও শেষবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারা। তারপর থেকেই শিরোপা অধরা দলটির। এবার সেই সম্ভাবনা ভালোভাবেই জাগিয়ে তুলেছিল হ্যারি কেনের ইংল্যান্ড। ১৯৯০ সালের পর প্রথমবারের মতো সেমি ফাইনালে উঠেছিল ইংলিশরা। কিন্তু সেমি ফাইনালে এসে ক্রোয়েশিয়ার কাছে স্বপ্নভঙ্গ। সেবার তৃতীয়স্থান নির্ধারণী খেলায় ইতালির কাছে হেরে চতুর্থ হয়েছিল ইংল্যান্ড। গ্যারেথ সাউথগেটের শিষ্যদের সামনে শনিবারের ম্যাচটি তৃতীয় স্থান নিয়ে শেষ করে নতুন ইতিহাস লেখারও বটে।