খাদ্য সংকট এড়াতে সজাগ থাকার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর

ভবিষ্যতের খাদ্য সংকট এড়াতে কৃষিবিদদের সজাগ থাকার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার সকালে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে ষষ্ঠ জাতীয় কনভেনশন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ পরামর্শ দেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, খাদ্য উৎপাদনের পাশাপাশি তা প্রক্রিয়াজাতকরণের ওপর জোর দিতে হবে। ভবিষ্যতের খাদ্য সংকট এড়াতে কৃষিবিদদের সজাগ থাকতে হবে। আগাম প্রস্তুতি ও কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে।

তিনি বলেন, ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাসসহ যেকোনো দুর্যোগের কারণে আমাদের এক মৌসুমের খাদ্য নষ্টও হতে পারে। সেজন্য আগে থেকে প্রস্তুতি নিতে হবে। পর্যাপ্ত পরিমাণে খাদ্য মজুদ রাখতে হবে। আমরা চাই আমাদের দেশের মানুষ ভালো থাকুক, এগিয়ে যাক। এজন্য আমরা সুদূর প্রসারী পরিকল্পনা নিয়েছি। ‘ডেল্টা প্ল্যান ২১০০’ নিয়েছি। এখানে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পেয়েছে কৃষি। কারণ, আমাদের অর্থনীতি কৃষিনির্ভর।

শেখ হাসিনা বলেন, সামনে নির্বাচন। মানুষ ভোট দিলে আমরা আবার ক্ষমতায় আসব। আর না দিলে নাই। তবে দেশটাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। যে অগ্রযাত্রা শুরু করেছি, সেটা যেন থেমে না থাকে। আমাদের যেন কারো কাছে হাত না পাততে হয়, সেজন্য কৃষিবিদদের নজর দিতে হবে।

২০১৭-১৮ অর্থবছরে দেশে খাদ্যশস্য উৎপাদন হয়েছে ৪ কোটি ১৫ লাখ মেট্রিকটন। ২০০৮-০৯ অর্থবছরে যা ছিল ৩ কোটি ২৮ লাখ মেট্রিকটন। জিডিপিতে কৃষিখাতের অবদান শতকরা ১৪ দশমিক ১০ ভাগ। একদিকে জনসংখ্যার ক্রমবৃদ্ধি অন্যদিকে কৃষিজমির পরিমাণ কমলেও দেশের খাদ্য ও পুষ্টি চাহিদা পূরণে নানা গবেষণা ও উদ্ভাবন অব্যাহত রেখেছেন কৃষিবিদরা।

কৃষিজমির সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করা, গবেষণা, প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়ানো, অভিজ্ঞতা বিনিময় এবং টেকসই খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে, ষষ্ঠবারের মতো কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ জাতীয় কনভেনশনের আয়োজন করা হয়।

এই কনভেনশন উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনী ভাষণে তিনি বলেন, তার সরকার দায়িত্ব নেয়ার পর বাংলাদেশ বর্তমান বিশ্বে ধান উৎপাদনে চতুর্থ, মাছ উৎপাদনে তৃতীয় এবং মাংস উৎপাদনে চতুর্থ স্থান অর্জন করেছে।

শেখ হাসিনা বলেন, দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা আর আন্তরিকতার কারণে বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে।

এ সময় কৃষিজমির সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করার আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে কৃষিখাতে বিশেষ অবদান রাখায় কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিমকে আজীবন সস্মাননা তুলে দেন বঙ্গবন্ধু কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

কৃষিবিদ এ এম এম সালেহের সভাপতিত্বে এতে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, কৃষিবিদ ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাছিমসহ সরকারের পদস্থ কর্মকর্তা ও কৃষি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।