খুলনায় ঠিকাদার খুন

খুলনায় সন্ত্রাসীদের ছুরিকাঘাতে মিজানুর রহমান বালা নামে এক ঠিকাদার নিহত হয়েছে।  মহানগরীর মুসলমানপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত মিজানুর যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সমবায়বিষয়ক সম্পাদক এসএম মেজবাহ হোসেন বুরুজের বড় ভাই। বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। নিহতের বাড়ি নগরীর বাগমারা জাহিদুর রহমান সড়কে। তিনি গোপালগঞ্জ শিবপুর এলাকার মৃত জহুরুল হকের ছেলে।

রাত পৌনে ১০টার দিকে রিকশাযোগে মিজানুর রহমান বালা বাগমারায় নিজের বাড়ির সামনে এসে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এ সময় আশেপাশের লোকজন তার পেটে ছুরিকাঘাতের ক্ষত দেখতে পায়। দ্রুত তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তার দুই হাত ও পেটের বাঁ-পাশে ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

তবে অপর একটি সূত্র জানায়, মিজানুর রহমান বালা রিকশাযোগে নগরীর রায়পাড়া থেকে বাগমারা যাওয়ার পথে অন্ধকারে ছুরিকাঘাতের শিকার হন।

নগরীর সোনাডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মমতাজুল হক বলেন, রক্তাক্ত অবস্থায় মিজানুর রহমানকে বাড়ির সামনে থেকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে। পরে রাত সাড়ে ১০টার দিকে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি ঠিকাদারি পেশায় জড়িত ছিলেন বলে জানা গেছে। তার প্রতিষ্ঠানের নাম সানি এন্টারপ্রাইজ।

উল্লেখ্য, নিহতের ভাই যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সমবায়বিষয়ক সম্পাদক এসএম মেজবাহ হোসেন বুরুজ খুলনার স্থানীয় রাজনীতিতে প্রভাবশালী নেতা ছিলেন। তিনিও ঠিকাদারি ব্যবসার সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ২০১৫ সালের ১৯ ডিসেম্বর হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হয়ে বুরুজ মারা যান।