টেক্সাসে স্কুলে বন্দুকধারীর গুলি, নিহত ৮

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের একটি হাই স্কুলে অজ্ঞাত এক বন্দুকধারীর গুলির ঘটনায় কমপক্ষে আটজন নিহত হয়েছেন। খবর বিবিসি ও সিএনএনের।

হ্যারিস কাউন্টির শেরিফ এড গঞ্জালেজ জানান, স্থানীয় সময় শুক্রবার সকালে হিউস্টন থেকে ৪০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত সান্তা ফে হাই স্কুলে এই হামলার ঘটনা ঘটে। পুলিশ সন্দেহভাজন হামলাকারীকে গ্রেপ্তার করেছে। তাছাড়া আরো একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা এই স্কুলের ছাত্র বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গত আটদিনে যুক্তরাষ্ট্রের স্কুলে এটি তৃতীয় হামলার ঘটনা। বছর শুরু হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত ২২টি বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটেছে।

স্কুল কর্তৃপক্ষ হামলার ঘটনায় হতাহতের খবর নিশ্চিত করেছে। ক্লাস শুরু হওয়ার পরই গুলি চালানো শুরু করে একজন বন্দুকধারী। পুলিশ এখনো হামলায় হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেনি।

শেরিফ এড গঞ্জালেজ জানান, নিহতদের অধিকাংশই স্কুলের শিক্ষার্থী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, স্কুলে গুলির শব্দ শোনার পর পরই শিক্ষার্থীরা দৌড়ে বাইরে চলে আসে। তারা স্কুলে অ্যালার্মের শব্দ শুনেছেন।

একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, একজন বন্দুকধারী প্রথমে স্কুলের একটি আর্ট ক্লাসে ঢুকে এবং গুলি চালানো শুরু করে। অস্ত্রটি দেখতে শর্টগানের মতো মনে হয়েছে। একটি মেয়ের পায়ে গুলি লাগতে দেখেছেন তিনি।

ঘটনাস্থলে বম্ব স্কোয়াড এবং হেলিকপ্টার অ্যাম্বুলেন্স পাঠিয়ে আহতদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্প স্কুলে হামলার ঘটনাকে ‘খুব ভয়ংকর’ বলে মন্তব্য করেছেন। হামলার সময় তিনি হোয়াইট হাউসের বন্দীদের সংশোধন বিষয়ের একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছিলেন।

তিনি বলেন, ‘আমার প্রশাসন আমাদের শিক্ষার্থীদের রক্ষা, আমাদের স্কুলগুলিকে নিরাপদ করার জন্য কাজ করছি। তাছাড়া যাদের হাতে অস্ত্র থাকলে তাদের এবং অন্যদের জন্য হুমকি তা বন্ধ করতে কাজ করছি।’