ডিপ্রেশন কমাতে সপ্তাহে এক ঘণ্টা ব্যায়াম

বর্তমানে সারাবিশ্বে একটি সাধারণ মানসিক রোগ হচ্ছে ডিপ্রেশন বা বিষণ্নতা। দিন দিন মানুষের মধ্যে হতাশা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, পৃথিবীতে বর্তমানে প্রায় ৩৫০ মিলিয়ন লোক এই বিষণ্ণতা ব্যাধিতে ভুগছে যা তাদেরকে অক্ষমতার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। বাংলাদেশেও দিন দিন বিষণ্ণতায় ভোগা রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।

অনেকেই এই ডিপ্রেশনকে গুরুত্ব দেয় না। কিন্তু আপনি চাইলেই এই ডিপ্রেশন থেকে মুক্তি পেতে পারেন। নিয়মিত শারীরিক পরিশ্রম বা ব্যায়াম ডিপ্রেশন বা বিষণ্নতা কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

গবেষণায় দেখা গেছে, সপ্তাহে এক ঘণ্টা নিয়মিত ব্যায়াম করলে বিষণ্নতা প্রতিরোধ করতে পারে। যেকোনো ধরনের ব্যায়াম নিয়মিত করার অভ্যাস থাকলে হতাশার বিরুদ্ধে কাজ করে। এটা মানসিক স্বাস্থ্যেরও উন্নতি ঘটায়।

গবেষণাটি ৩৩,৯০৮ জন লোকের উপর পরিচালিত হয়েছে। যারা নিয়মিত ব্যায়াম করে ১১ বছর তাদের হতাশা, অবসাদ পর‌্যবেক্ষণ করা হয়েছে।

ফলাফলে গবেষকরা এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন যে, যারা সপ্তাহে অন্তত এক ঘণ্টা যেকোনো শারীরিক কর‌্যক্রমে অংশ নেন তাদের হতাশা কমপক্ষে ১২ শতাংশ কমে যায়।

অবসাদ বা হতাশার উপসর্গের চিকিৎসার ক্ষেত্রে ব্যায়াম গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসেবে ধরা হয়। এমনকি ভবিষ্যতে হতাশার মাত্রা কমানোর ক্ষেত্রেও ব্যায়াম গুরুত্বপূর্ণ।

কম করে হলেও সপ্তাহে অন্তত এক ঘণ্টা শারীরিক পরিশ্রমে আশ্চর‌্যজনকভাবে হতাশার বিরুদ্ধে কাজ করে।

গবেষণায় এও দেখা গেছে, যারা নিয়মিত সপ্তাহে এক থেকে দুই ঘণ্টা ব্যায়াম করেন তাদের হতাশা ব্যায়াম না করাদের চেয়ে হতাশা প্রতিরোধের ক্ষমতা ৪৪ শতাংশ বেশি।

মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতির ক্ষেত্রে ব্যায়াম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাদের জীবনমানের উন্নতি ঘটে, হতাশার মাত্রা কমে এবং শারীরিকভাবেও তারা সুস্থ থাকে।