দুইবারের বেশি বিয়ে করেছেন এই তারকারা

কেউ এক বার প্রেমে পড়েন। কেউ পড়েন বার বার। তবে বলিউডের তারকাদের দিকে তাকালেই আরও বেশি কিছু চোখে পড়বে। এমনই কিছু তারকা রয়েছেন যারা এক বার বা দু’বার নয় তারও বেশি বার বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন।

সঞ্জয় দত্তের জীবনে বহু নারীর আনাগোনাই ছিল— পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল তার বায়োপিক দেখে। রিচা শর্মার গলায় প্রথম মালা পরিয়েছিলেন সঞ্জয় দত্ত। ত্রিশালা নামের একটি কন্যাও রয়েছে তাদের দু’জনের। তারপরে মডেল রিয়া পিল্লাইকে বিয়ে করেন সঞ্জয়। কিন্তু সে বিয়েও বেশিদিন টেকেনি। আর তারপরেই মান্যতা দত্তকে বিয়ে করেন বলিউডের সঞ্জু বাবা।

প্রথমে বাণী গণপতি নামের এক নৃত্যশিল্পীকে বিয়ে করেছিলেন কমল হাসান। দশ বছর পরে ডিভোর্স হয়ে যায় কমল এবং বাণীর। তার কিছু দিন পরেই বলিউড অভিনেত্রী সারিকাকে বিয়ে করেছিলেন কমল হাসান। সে বিয়েও টেকেনি বেশি দিন। ২০০৫ সালে দক্ষিণী অভিনেত্রী গৌতমী তাডিমাল্লাকে বিয়ে করেন কমল।

প্রতিমা নামের এক ওড়িশি নৃত্যশিল্পীকে বিয়ে করেছিলেন অভিনেতা কবীর বেদি। কিছুদিনের মধ্যেই ডিভোর্স হয়ে গিয়েছিল দু’জনের। তারপরেই ব্রিটিশ ফ্যাশন ডিজাইনার সুজান হামফ্রেজকে বিয়ে করেন কবীর। তাদের দু’জনের একটি পুত্রসন্তানও রয়েছে। সুজানের সঙ্গে ডিভোর্সের পরে নিক্কি নামের একজন রেডিও অ্যাঙ্করকে বিয়ে করেছিলেন কবীর। সে বিয়েও বেশি দিন টেকেনি। আর তার পরেই দীর্ঘদিনের বান্ধবী পারভীন দুসাঞ্জকে বিয়ে করেছিলেন কবীর।

 

‘দিল মিল গ্যায়ে’ ধারাবাহিকে অভিনয় করে জনপ্রিয় হয়েছিলেন করণ সিং গ্রোভার। এই সিরিয়ালেরই নায়িকা শ্রদ্ধা নিগমকে প্রথমে বিয়ে করেছিলেন করণ। ১০ মাসের মধ্যেই বিচ্ছেদ হয়ে গিয়েছিল দু’জনের। তারপরে জেনিফার উইঞ্জেটকে বিয়ে করেছিলেন করণ। সে বিয়েও ভেঙে গিয়েছিল। আর তার পরে বিপাশা বসুকে বিয়ে করেন করণ সিং গ্রোভার।

চার বার বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন কিশোর কুমার। ১৯৫০ সালে রুমা গুহঠাকুরতাকে বিয়ে করেছিলেন এই গায়ক। তার ঠিক দশ বছরের মাথায় অভিনেত্রী মধুবালার গলায় মালা পরিয়েছিলেন তিনি। কিশোর কুমারের তৃতীয় পত্নীও বলিউডের এক অভিনেত্রী, যোগিতা বালি। দু’বছর টিকেছিল সেই বিয়ে। ১৯৮০ সালে অভিনেত্রী লীনা চন্দ্রভারকরের প্রেমে পড়েছিলেন কিশোর কুমার।

১৯৭৫ সালে পঙ্কজ কাপুরকে বিয়ে করেছিলেন অভিনেত্রী নীলিমা আজিম। তাদেরই পুত্র শহিদ কাপুর। কিন্তু শহিদের জন্মের তিন বছর পরে ১৯৮৪ সালে ডিভোর্স হয়ে গিয়েছিল পঙ্কজ ও নীলিমার। ১৯৯০ সালে ফের রাজেশ খাট্টারকে বিয়ে করেন নীলিমা। দু’জনের বিচ্ছেদ হয়ে যায় ২০০১ সালে। নীলিমা আর রাজেশেরই পুত্র ঈশান খাট্টার। ২০০৪ সালে রাজা আলি খানকে বিয়ে করেন নীলিমা। কিন্তু ২০০৯ সালেই ডিভোর্স হয়ে গিয়েছিল দু’জনের।