নগরীতে গ্যাস সিলিন্ডার লিক হয়ে ৮জন অগ্নিদগ্ধ

খুলনা মহানগরীর আহসান আহমেদ রোডে একটি ফাস্ট ফুডের দোকানের রান্নাঘরে গ্যাস সিলিন্ডার লিক হয়ে অগ্নিকান্ডে ৮জন দগ্ধ হয়েছেন। শুক্রবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।
আগুনে দগ্ধরা হলেন, রোস্টার কিং নামক ফাস্ট ফুড ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক আল আমিন, ফায়ার ব্রিগেডের লিডার মামুন, ফায়ারম্যান ফরিদ ও মেজবাহ, প্রতিবেশী আবু তাহের। রোস্টার কিং-এ মুরগী সরবরাহকারীসহ আহত অন্য ৩জনের নাম পরিচয় জানা যায়নি ।
খুলনা সদর থানার ওসি এম এম মিজানুর রহমান জানান, শুক্রবার দুপুরে রোস্টার কিং-এর পিছনে রান্নাঘরে একটি গ্যাস সিলন্ডার থেকে আগুন ধরে যায়। এসময় রান্নাঘরের বিভিন্ন স্থানে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফায়ার ব্রিগেডের কর্মীরা। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার সময় ফায়ার ব্রিগেডের তিন কর্মী, দোকান মালিকসহ ৮জন দগ্ধ হয়েছেন। তাদের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।
খুলনা ফায়ার সার্ভিস অফিসের কন্ট্রোল রুমের অপারেটর জানান, গ্যাস সিলিন্ডারের মুখের ভিতর থাকা রাবার পুড়ে গিয়ে লিক হয়ে গ্যাস বের হয়ে আগুন ধরে যায়। পরবর্তীতে ফায়ার ব্রিগেডের কর্মীরা ওই গ্যাস সিলন্ডার বাইরে বের করে আনার সময় সিলিন্ডারের পিন খুলে গিয়ে আরও গ্যাস বেরিয়ে পড়লে আগুন আরও ছড়িয়ে পড়ে।
খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডাঃ শাহরিয়ার জানান, ফায়ার সার্ভিসের লিডার মামুন ও ফয়ারম্যান ফরিদসহ তিনজনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় রেফার্ড করা হয়েছে।
বার্ণ ও প্লাষ্টিক ইউনিটের প্রধান ডাঃ মোঃ তরিকুল ইসলাম জানান,
হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসে ৯জন। এদের মধ্যে ৩জন ফায়ার সার্ভিসের। এদের মধ্যে ২জনকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। একজন চিকিৎসা নিয়ে চলে যায়। দগ্ধদের মধ্যে সবুজের (২৪) ১৫শতাংশ, বিদ্যুৎ এর (৫৪) ১০শতাংশ, আল আমিনের (৩৩), ৩০শতাংশ, রাসেলের (২৪) ১৮শতাংশ, মেজবাহর (৩০) ১০শতাংশ এবং
আনোয়ারার (৪৬) শরীরের ২৬শতাংশ পুড়ে গেছে।