নির্বাচনী আইন সংস্কার নিয়ে আজ বসছে ইসি

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে নির্বাচনী আইন সংস্কার তথা গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) সংশোধনের জন্য বৈঠকে বসছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। রবিবার সকাল ১০টায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে বৈঠক শুরু হবে।  গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও)-১৯৭২-এর সংশোধনীর বিষয়টি প্রধান আলোচ্যসূচি হিসেবে রাখা হয়েছে ইসির এই ৩৫তম কমিশন বৈঠকে।

ইসির জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব মো. শাহ আলম সংবাদমাধ্যমকে জানান, কমিশন বৈঠকে দুটি প্রধান এজেন্ডা রয়েছে। প্রথমটি গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ-১৯৭২ এর সংশোধন। অন্যটি হলো এ বছর ঢাকায় হতে যাওয়া সার্কভুক্ত আট দেশের প্রধান নির্বাচন কমিশনারদের শীর্ষ সম্মেলনের (ফেমবোসা) প্রস্তুতি।

ইসি সূত্র জানায়, ইভিএম ব্যবহার, অনলাইন মনোনয়নপত্র জমা, জামানত বাড়ানো, স্বতন্ত্র প্রার্থিতাসহ অন্তত ৩৫টি প্রস্তাব নিয়ে বসছে ইসি।

এই বৈঠকে আরপিও সংশোধন অনুমোদন পেলে তা আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। এরপর মন্ত্রিপরিষদের অনুমোদন শেষে বিল আকারে জাতীয় সংসদের আগামী অধিবেশনে উপস্থাপন করা হবে। আগামী ৯ সেপ্টেম্বর বসছে জাতীয় সংসদের ২২তম অধিবেশন।

গত সপ্তাহে নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম বলেছিলেন, ‘আরপিও সংশোধন নিয়ে দুটি কমিশন বৈঠক হয়েছে। সেখানে কিছু সংশোধন বা আরও কিছু প্রস্তাব এসেছে। এখন এটি কমিশন বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

নির্বাচনের আর মাত্র চার মাস বাকি। সংবিধান অনুযায়ী আগামী ডিসেম্বরের শেষে কিংবা জানুয়ারির শুরুতে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে।

সংসদ নির্বাচনের জন্য কমিশন মোটামুটি প্রস্তুত বলে জানান নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম। তার ভাষ্য, আরপিও সংশোধনের মাধ্যমে তাতে ইভিএম অন্তর্ভুক্ত হলে সেভাবেই নির্বাচন কমিশন এগোবে।