বেনাপোলে দুই ট্রাক ইমিটেশন জুয়েলারি আটক

বেনাপোল বন্দরে আমদানি করা দুই ট্রাক ইমিটেশন জুয়েলারি পণ্য আটক করেছে কাস্টমস কর্মকর্তারা। মঙ্গলবার রাতে বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার বেলাল হোসাইন চৌধুরীর নিদের্শে কাস্টমস আইআরএম প্রতিনিধি দল বেনাপোল বন্দরের জিরো পয়েন্ট এলাকা থেকে ট্রাক দুটি আটক করে। এ সময় জব্দ করা হয়েছে ওই ট্রাক দুটির চাবিসহ সব কাগজপত্র।

বেনাপোল কাস্টমস জানায়, আটক করা পণ্য চালানটির আমদানিকারক ঢাকার ‘আনাস এন্টারপ্রাইজ নামের একটি প্রতিষ্ঠান। এর রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান ভারতের জেইন এক্সপোর্ট। রাতে পণ্য চালানটি ভারতের পেট্রাপোল বন্দর থেকে বেনাপোল বন্দরে ঢুকে।

আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান পণ্যটি আমদানি করার জন্য গত ১ নভেম্বর ঢাকার মেঘনা ব্যাংক লিমিটেড থেকে একটি এলসি খোলেন।

পণ্য চালানটির আমদানি মূল্য দেখানো হয়েছে ২৬ হাজার ১৬২ মার্কিন ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় ২১লাখ ৯২হাজার টাকা। পণ্য চালানটিতে আমদানিকৃত পণ্যের ঘোষণায় আছে প্লাস্টিক বেঙ্গল অ্যান্ড আদার্স পণ্য।

বেনাপোল কাস্টম হাউসের সহকারী কমিশনার উত্তম চাকমা পণ্যবোঝাই দুটি ভারতীয় ট্রাক আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, একজন আমদানিকারক ভারত থেকে মিথ্যা ঘোষণার মাধ্যমে পণ্য চালান বেনাপোল বন্দরে নিয়ে আসছেন। এমন গোপন খবরে রাতে আইআরএম টিমের প্রতিনিধি সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা মোস্তফা আব্দুল্লাহ আল মামুনকে নিয়ে বন্দরের জিরো পয়েন্ট এলাকায় অভিযান চালানো হয়। পরে পণ্যবোঝাই দুটি আটক করে বেনাপোল কাস্টম হাউসে আনা হয়।

আটক ট্রাক দুটির চালক দুলাল দাস এবং তপন কুমার তাদের গাড়িতে ইমিটেশন জুয়েলারি জাতীয় পণ্য আছে বলে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন।

পণ্যের আমদানিকারক ও সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টকে এখানো পাওয়া যায়নি বলে কাস্টমস কর্মকর্তা উত্তম চাকমা জানিয়েছেন।