ব্লু হোয়েলের প্ররোচনায় সৌদি বালকের আত্মহত্যা

ব্লু হোয়েল গেমের প্ররোচনায় পড়ে বৃহস্পতিবার এক সৌদি বালক আত্মহত্যা করেছে। সম্প্রতি আরব দেশগুলোতে এ প্রাণঘাতী প্রতিযোগিতায় আত্মহননের সংখ্যা বাড়ছে। আবদুল্লাহ বিন ফাহিদ বলেন, ১২ বছর বয়সী তার চাচাতো ভাই ব্লু হোয়েল গেম খেলে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। আব্দুল রাহমান আল আহমারি নামের শিশুটি ব্লু হোয়েল প্রতিযোগিতায় জড়িত ছিল বলে জানিয়েছে তার বন্ধুরা।

তার বাবা বলেন, তার আচার-ব্যবহারে কোনো অস্বাভাবিকতা দেখিনি। তার কোনো স্মার্টফোনও ছিল না। তবে পারিবারিক কম্পিউটার ব্যবহার করত সে।

তিনি বলেন, যেদিন সে আত্মহত্যা করে সেদিন আমাদের সঙ্গে রোজা রেখেছিল। আমরা একসঙ্গেই ইফতার করি। এর পর সে রুমে গিয়ে দরজা বন্ধ করে দেয়।

আল আহমারির বাবা বলেন, আমাদের এক জায়গায় যাওয়ার কথা ছিল। যখন আমরা সবাই প্রস্তুত হয়েছি, তখন তাকে খুঁজে পাচ্ছিলাম না। সারা বাড়ি খোঁজাখুজির পর জানালার পর্দা দিয়ে শ্বাসরোধ করা অবস্থায় তাকে দেখতে পাই।

এর পর তার জিনিসপত্র খুঁজে দেখতে পেলাম সে ব্লু হোয়েল গেমে আসক্ত হয়েছিল। ব্লু হোয়েলের ৫০টি পর্ব শেষ করে সে আত্মহত্যা করেছে।

ধাপে ধাপে প্ররোচিত করে আত্মহত্যার দিকে ঠেলে দেয়া কথিত অনলাইন গেম ব্লু হোয়েলে অনেককে জীবন দিতে দেখা গেছে।

মানসিক বিকারগ্রস্ত এক রুশ তরুণ ব্লু হোয়েল নামের এই অনলাইন গেম তৈরি করেন। যা ইন্টারনেটে কোনো প্রকাশ্য ওয়েবসাইটে পাওয়া যায় না।

কারও কাছ থেকে পাওয়া ওয়েবসাইটের ঠিকানা থেকে গেমটি নামিয়ে নিয়ে খেলতে হয়।