যে ধরনের পানীয় কখনোই পান করবেন না

অনেকে ওজন কমানো বা বাড়ানোর দাওয়াই হিসেবে স্বাস্থ্যসম্মত কোমল পানীয় বেছে নেন। এতে অনেক সময় দৈনন্দিন জীবনযাত্রায় ছোটখাট পরিবর্তন আনতে হয়। এ কারণে নিয়মিত ব্যায়াম, সকালে নির্দিষ্ট সময় ঘুম থেকে উঠা এবং রাতে নির্দিষ্ট সময়ে ঘুমাতে যাওয়া এসব আমরা মেনে চলা হয়।

তবে আমরা কোমল পানীয় পানের ক্ষেত্রে অনেক সময় ভুল করে থাকেন সেই বিষয়টাকে আমরা এড়িয়ে যায়। অনেক সময় দেখা যায় আমরা সেসব কোমল পানীয় পান করি সেগুলো শরীরের জন্য বেশ ক্ষতিকর।

আইসড টি: প্রচণ্ড গরমে অনেকেই আইসড টি খেতে পছন্দ করেন। কিন্তু আপনি জানেন কি আইসড টি তে ব্যবহৃত সোডা শরীরের জন্য ক্ষতিকর। এটি প্রতি গ্লাসে ২৫০ ক্যালোরি করে থাকতে পারে। সোডা বিপরীতে প্রচুর পরিমাণ চিনিও থাকে এতে।

হট চকোলেট: কমবেশি সবাই চকোলেট খেতে পছন্দ করেন। তাই বলে হট চকোলেট সব সময় খাওয়া মোটেও ঠিক নয়। এতে প্রচুর ক্যালোরি থাকার পাশাপাশি একদিনে পর‌্যাপ্ত ফ্যাট যুক্ত হয়। অন্যদিকে সল্টেড হট চকোলেটে প্রচুর সোডিয়াম থাকে যা হার্টের জন্য ক্ষতিকর এবং উচ্চ রক্তচাপের জন্য দায়ী।

ফ্লেভারড ওয়াটার: আজকাল বেভারেজ হিসেবে ফ্লেভারড ওয়াটার বেশ প্রচলিত। এতে প্রচুর ভিটামিন এবং পুষ্টি রয়েছে। তবে এতে থাকা চিনি শরীরের জন্য বেশ ক্ষতিকর।

অ্যানার্জি ড্রিংকস: দীর্ঘদিন এনার্জি ড্রিংস পানে অভ্যস্ত হয়ে পড়লে ঘুমের সমস্যা হয় এবং কাজের ব্যাঘাত ঘটে। অতিরিক্ত এনার্জি ড্রিংস পানে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ে। এটি ওজন বাড়ায় এবং এমনকি স্ট্রোকের কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

মিল্কশেইক: এটি একটি লিক্যুইড ডেজার্ট হিসেবে বেশ জনপ্রিয়। এতে উচ্চমাত্রায় ক্যালসিয়াম, সুগার থাকে যা শরীরের জন্য উপকারী। তবে রেস্টুরেন্টে বা ক্যাফেতে সেসব মিল্কশেইক আমরা খাই সেখানে ৫০০-৭০০ ক্যালোরির ফ্যাট থাকে। যা মানব দেহের জন্য ক্ষতিকর।

পূর্বে তৈরিকৃত স্মুদি:  স্মুদি স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী এটা আমরা সবাই জানি। এটা বিভিন্ন ধরনের ফল ও সবজির মিশ্রণে তৈরি করার ফলে পুষ্টির ঘাটতি পূরণ হয়। এটি ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায় এবং হার্টের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটায়।

তবে, রেস্টুরেন্টে যেসব স্মুদি খাওয়া হয় সেগুলো অনেক আগে থেকে তৈরি করে রাখা। এবং এতে পরিশোধিত চিনি ব্যবহার করা হয়। অনেক সময় এতে আইসক্রিম এবং ফ্যাট মিল্ক দেয়া হয় যা মোটেও স্বাস্থ্যসম্মত নয়। এ কারণে স্মুদি খাওয়ার আগে স্বাস্থ্যসম্মত কিনা তা নিশ্চিত করতে হবে। সবচেয়ে ভালো হয় বাড়িতেই টাটকা ফল ও সবজি দিয়ে স্মুদি বানাতে পারেন আপনি।