সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১২

নরসিংদীতে যাত্রীবাহী বাস ও যাত্রীবাহী লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত হয় পাঁচ জন। নিহতরা হলেন- রামনগর এলাকার মোজাম্মেল হোসেনের স্ত্রী শরিফা বেগম (৫০), তার কন্যা জান্নাত (১৮), অপর এক নারী ও দুই জন পুরুষের নাম জানা যায়নি। এতে আহত হয় ২০ জন যাত্রী। শুক্রবার রাত সোয়া ৯টায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার কুন্দারপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নরসিংদী অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) জাকির হোসেন জানান, সিলেট থেকে ঢাকাগামী যাত্রীবাহী বাস এনা পরিবহন কুন্দারপাড়া পৌঁছলে বিপরীতমুখী ভেলানগর থেকে মরজালগামী যাত্রীবাহী লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে শিশু, মহিলাসহ পাঁচ জন নিহত হয়। আহত ২০ জন।

আহতদের নরসিংদী জেলা হাসপাতালে ও সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় গুরুতর আহতাবস্থায় পাঁচ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
সৈয়দপুরে ১
নীলফামারী প্রতিনিধি: সৈয়দপুরে বালি বোঝাই ট্রলির ধাক্কায় রুবেল নামের (২৪) এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। সে শহরের জসিম বাজার এলাকার ডা. মোশাররফ হোসেনের ছেলে। জানা গেছে, শনিবার সকালে ইউনিলিভার অফিস থেকে মালামাল নিয়ে মোটরসাইকেলে শহরের কুন্দল এলাকায় যাওয়ার সময় বিপরীত দিক থেকে আসা বালি বোঝাই ট্রলিটি রুবেলকে ধাক্কা দেয়। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সৈয়দপুর হাসপাতাল ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়। সৈয়দপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, ট্রলি চালককে আটক করা হয়েছে।
ঝিনাইদহে ১
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হাটগোপালপুরে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় শাহিন হোসেন (৪০) নামের এক বাইসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। শনিবার সকালে ঝিনাইদহ-মাগুরা মহাসড়কের হাটগোপালপুর কলেজের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শাহিন হোসেন ঝিনাইদহ শহরের পবহাটি এলাকার গোলাম তহুর শাহ’র ছেলে। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি এমদাদুল হক শেখ জানান, সকালে শৈলকুপার যুগনী গ্রাম থেকে বাইসাইকেলযোগে ঝিনাইদহ শহরে আসছিল শ্রমিক শাহিন হোসেন। পথে হাটগোপালপুর কলেজের সামনে পৌঁছলে পেছন থেকে আসা একটি মাইক্রোবাস তাকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে।
চৌদ্দগ্রামে ২
চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি: কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই জন নিহত ও অন্তত ২২ জন আহত হয়েছেন। শনিবার সকালে ও শুক্রবার রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সৈয়দপুর এবং ঘিনাগাজী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- বাসযাত্রী ফরিদপুর সদর থানার দীঘুনিয়া গ্রামের বানছারাজ সূত্রধরের পুত্র স্বপন কুমার সূত্রধর (৪৫) ও পাবনার আতাইকুলা থানার রঘুনাথপুর গ্রামের জিন্দার আলীর পুত্র আসাদ মল্লিক (৩৫)। আহতদের নাম জানা যায়নি। এ ব্যাপারে মিয়াবাজার হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এসআই আবুল হোসেন জানান, শুক্রবার রাত ১১টায় ঢাকামুখী ফরিদপুর এক্সপ্রেস নামের যাত্রীবাহী বাস ঘিনাগাজী এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলে যাত্রী স্বপন কুমার সূত্রধর ও আসাদ মল্লিক নিহত হন।
মধুপুরে ২
মধুপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি: মধুপুর উপজেলায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে  মোটরসাইকেলের ধাক্কা লেগে প্রাণ হারালো আরিফ (১৫) ও সজিব (১৪) নামে দুই বন্ধু। শনিবার সকালে উপজেলার আমতলী বাজার এলাকার কাছে এ দুর্ঘটনায় ঘটে। নিহত আরিফ আশ্রা গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে। সে আশ্রা মাদরাসার অষ্টম শ্রেণিতে পড়তো। সজীব একই গ্রামের সরুজ মিয়ার ছেলে। সে ধলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র ছিলো।
টঙ্গীতে ১
স্টাফ রিপোর্টার, টঙ্গী থেকে: টঙ্গীতে ট্রেন থেকে পড়ে জেমস পি বিশ্বাস (৬০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। নিহত জেমস পি বিশ্বাস গোপালগঞ্জ জেলার সদর থানার নাইকেলবাড়ি গ্রামের শিশির বিশ্বাসের ছেলে। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় টঙ্গী রেল স্টেশনের দক্ষিণ পাশে বউবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
নিহতের প্রতিবেশি মো. হোসেন  জানান, জেম্‌স পি বিশ্বাস পাগাড় ঝিনু মার্কেট এলাকার খ্রিষ্টান পাড়ায় থাকতেন। সকালে ঢাকার মনিপুরী পাড়ায় তার টেলিভিশন মেরামতের দোকানে যাওয়ার জন্য বাসা থেকে বের হয়। প্রচণ্ড ভিড়ের মধ্যে ঢাকাগামী একটি ট্রেনের দরজায় ঝুলে যাওয়ার সময় পড়ে যায় সে। এসময় স্থানীয়রা আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে টঙ্গীর সরকারী হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে উত্তরার আরএমসি হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।