হাসপাতালে ম্যারাডোনা

রাশিয়া বিশ্বকাপ চলাকালে বোদ্ধা-বিশ্লেষক হিসেবে ইতালি ও ভেনেজুয়েলার একটি টেলিভিশন চ্যানেলে চুক্তিবদ্ধ দিয়েগো ম্যারাডোনা। বিশ্বকাপ শুরু হতে আর মাত্র পাঁচ দিন বাকি। এমন সময়ে হাঁটুর অস্ত্রোপচারের ঝুঁকিতে ৮৬’র বিশ্বকাপ জয়ী এই আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি। পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য গত বুধবার কলম্বিয়ার কালি শহরের একটি হাসপাতালে ভর্তি হন ম্যারাডোনা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ‘দ্য সান’ ও ‘মিরর’ এমন খবর প্রকাশ করেছে। চার মাস ধরে বাম হাঁটুর ব্যথায় ভুগছেন ৫৭ বছর বয়সী ম্যারাডোনা।

ডাক্তার জার্মান ওচোয়ার তত্ত্বাবধানে রয়েছেন তিনি। ১৭ বছর আগে এই ডাক্তারই ম্যারাডোনার হাঁটুতে অস্ত্রোপচার করেছিলেন। ওচোয়া বলেন, ‘ম্যারাডোনার হাঁটুতে স্বাভাবিক কিছু পরীক্ষা করা হয়েছে। আমরা সব রিপোর্ট পর্যালোচনা করে দেখবো। হাঁটুর সার্বিক অবস্থা দেখে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’ কলম্বিয়ার স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি, ম্যারাডোনা ছয় থেকে আটদিন হাসাপাতালে থাকবেন। এর মধ্যে সব রিপোর্ট হাতে আসবে। সম্প্রতি কোচিং পেশা ছেড়ে বেলারুশের ফুটবল ক্লাব ডায়নামো ব্রেস্টের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেন ম্যারাডোনা। আসন্ন বিশ্বকাপে ইতালির একটি টেলিভিশনে নিজের বিশ্লেষণ তুলে ধরবেন আর্জেন্টাইন ফুটবল ঈশ্বর। আর ভেনেজুয়েলার টিভি চ্যানেল ‘টেলেসুর’ এ থাকছে ম্যারাডোনার নামে শো ‘ফ্রম দ্য ১০’স হ্যান্ড’। ম্যারাডোনার হাত ধরে ১৯৮৬ সালে শেষবার বিশ্বকাপ শিরোপা ঘরে তোলে আর্জেন্টিনা। ম্যারাডোনার নেতৃত্বে পরের আসরেও ফাইনালে ওঠে আলবিসেলেস্তেরা। লিওনেল মেসির হাত ধরে দীর্ঘ শিরোপা খরা কাটানোর স্বপ্ন দেখছে আর্জেন্টাইনরা। ২০১৪ বিশ্বকাপের ফাইনালে অল্পের জন্য হয়নি। ম্যারাডোনার উত্তরসূরিদের সামনে সেই আক্ষেপ ঘোচানোর চ্যালেঞ্জ। আগামী ১৬ই জুন আইসল্যান্ড ম্যাচ দিয়ে এবারের বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু করবে মেসির আর্জেন্টিনা। ‘ডি’ গ্রুপের অপর দুই প্রতিপক্ষ ক্রোয়েশিয়া ও নাইজেরিয়া।