26 জুন 2017

অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে চীনকে ছাড়িয়ে গেল ভারত!

150531-india economicsখুলনানিউজ.কম:: মোদী সরকারের বর্ষপূর্তির সময় ভারতকে কিছুটা স্বস্তি দিল আর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির বিকাশের হার। কারণ আর্থিক প্রবৃদ্ধির দৌড়ে চিনকে পিছনে ফেলল ভারত। যদিও সরকারি হিসাব পদ্ধতি নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন অর্থনীতিবিদদের একাংশের। চলতি বছরের জানুয়ারি

থেকে মার্চ এই সময়ের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি সংক্রান্ত ভারতের সরকারি পরিসংখ্যান শুক্রবার প্রকাশ হয়েছে।

ওই পরিসংখ্যান থেকে জানা গিয়েছে, ২০১৪-১৫ অর্থ বছরের শেষ তিন মাসে ভারতে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বেড়ে ৭.৫ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।

যা এশিয়ার সবচেয়ে বড় অর্থনীতি চীনের চেয়েও বেশি। কারণ চীনের ওই সময় বৃদ্ধি ৭ শতাংশ। গোটা বছরের হিসাব বলছে বৃদ্ধি হার ৭.৩ শতাংশ।

তবে জাতীয় আয় মাপার যে-নতুন পদ্ধতি ভারত সরকার চালু করেছে, তা কতটা গ্রহণযোগ্য, সেটা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন অর্থনীতিবিদদের একাংশ। তাদের সন্দেহের কারণ হল অর্থনীতির এগিয়ে চলার অন্যান্য মাপকাঠির সঙ্গে এ দিনের পরিসংখ্যান মানানসই নয়।

কারণ বিভিন্ন শিল্প সংস্থার হতাশাজনক আর্থিক ফল, শিল্পোৎপাদনের ধীর গতি এবং ব্যাংকের ঋণ ফেরত না হওয়া নিয়ে দুশ্চিন্তা বাস্তবে ভিন্ন প্রতিফলন দিচ্ছে বলে তাঁদের ধারণা। নতুন ও পুরনো পদ্ধতিতে জাতীয় আয় হিসাবের মধ্যে তুলনা টেনে পরিসংখ্যানে ‘গরমিল’ এর অভিযোগ এনেছেন অর্থনীতিবিদরা।

নতুন হিসাবে জাতীয় আয় মাপা হয় বাজার দরে উৎপাদনের মূল্য হিসেব করে। আগে তা মাপা হত, উৎপাদনের খরচের ভিত্তিতে।

উৎপাদন খরচের ভিত্তিতে করা হিসাবের সঙ্গে পরোক্ষ কর যোগ করে এবং ভর্তুকি বাদ দিলে পাওয়া যায় বাজার দরের ভিত্তিতে জাতীয় আয়।

তাই এখান থেকে অর্থনীতির প্রকৃত ছবি পাওয়া কঠিন বলে মনে করছেন আন্তর্জাতিক অর্থনীতিবিদদের অনেকেই।

// ৩১-০৫-২০১৫ //