27 জুন 2017

খুলনার ১১০ বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থানীয়ভাবে চালুর পর আবারও বন্ধ

150601-khulna-power-plantখুলনানিউজ.কম:: ঐতিহ্যবাহী খুলনা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ১১০ মেগাওয়াট ইউনিটটি ওভারহোলিংয়ের জন্য পুন:টেন্ডারের সিদ্ধান্ত হলেও গত ৬ এপ্রিলের বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের মিটিংয়ে সেটি নাকচ করে দেয়া হয়। এর পর থেকে সরকারীদলসহ

খুবেক’র সকল শ্রমিক-কর্মচারীরা লাগাতার আন্দোলন-সংগ্রাম শুরু করে। আন্দোলনের পাশাপাশি খুবিকে’র শ্রমিক-কর্মচারীরা ইউনিটটি চালুর চেষ্টা চালায়। এক পর্যায়ে তারা সফলও হয়। কিন্তু কিছু সময় পর আবারও সেটি বন্ধ হয়ে যায়। তবে এটি ওভারহোলিংয়ের মাধ্যমে খুলনা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ঐতিহ্য ফিরে আসতে এমনটিই প্রমাণিত হয়েছে বলেও অনেকে মনে করেন।

খুবিকে’র সূত্রটি জানায়, গত বছর ৬ নভেম্বর থেকে বন্ধ হওয়া ১১০ কেন্দ্রটি রোববার দুপুর থেকে চালু করে কেন্দ্রের শ্রমিক-কর্মচারীরা। এসময় ৪০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করে কেন্দ্রটি। যদিও ৪০/৪৫ মিনিট পর ইউনিটটি আবারও বন্ধ হয়ে যায়।

খুবিকে’র প্রধান প্রকৌশলী জয়দেব কুমার সাহা বলেন, বোর্ডের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ১১০ ওভারহোলিং প্রক্রিয়া বন্ধ থাকলেও সম্প্রতি চালুর চেষ্টা চালাতে বলা হয়। বোর্ডের সবুজ সংকেত পাওয়ার পর শ্রমিক-কর্মচারীরা প্লান্টটি চালানোর চেষ্টা করে। রবিবার দুপুরে প্লান্টটি চালানো হলেও কিছু সময় পর আবারও ট্রিপ করে।

অপর একজন প্রকৌশলী বলেন, প্লান্টটি ওভারহোলিং হলে বেশ কয়েক বছর চালিয়ে রাখা সম্ভব হবে। কিন্তু বিউবো কর্তৃপক্ষ কি কারণে এটি ওভারহোলিং প্রক্রিয়া বন্ধের সিদ্ধান্ত নিলেন সেটি প্রশ্নের বিষয়।

খুবিকে’র শ্রমিক-কর্মচারীরা জানান, ঐতিহ্যবাহী খুলনা বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি ধ্বংসের জন্য একটি মহল ষড়যন্ত্র করছে। ওই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই ১১০ ওভারহোলিং প্রক্রিয়া থমকে গেল। এর বিরুদ্ধে খুলনাবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়া দরকার বলেও শ্র্রমিক-কর্মচারীদের দাবি।

// ০১-০৬-২০১৫ //