24 মে 2017

খুলনায় টিসিবির পণ্য কিনতে সাড়া নেই

খুলনানিউজ.কম:: পবিত্র রমজান উপলক্ষে সারাদেশের ন্যায় খুলনাতেও ট্রাকে করে পেঁয়াজ, চিনি, ছোলা, ডাল ও তেল বিক্রি শুরু করেছে সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। সোমবার সকাল থেকে এসব পণ্য বিক্রি শুরু হলেও তাতে ক্রেতাদের তেমন সাড়া নেই।

বাজারের সঙ্গে মূল্য ব্যবধান কম থাকায় ক্রেতাদের তেমন সাড়া মিলছে না বলে জানা গেছে। নগরীর তিনটি স্পটে সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, ট্রাকে করে টিসিবির ডিলাররা পণ্য নিয়ে বসে আছেন। কিন্তু কিছুক্ষণ পর পর দুই-একজন ক্রেতার দেখা মিলছে। অনেকে আবার সরকারি মূল্য শুনে ভুরু কুঁচকে চলে যাচ্ছেন। কিন্তু ডিলাররা জানান, প্রচণ্ড গরমের কারণে ক্রেতারা এখনো আছছেন না। বিকাল হলে ক্রেতা বাড়তে পারে।

আলাপকালে কয়েকজন ক্রেতা জানান, টিসিবি প্রতি কেজি চিনি ৫৫ টাকায় বিক্রি করছে, অথচ খোলা বাজারে এর মূল্য ৬৪ টাকা। টিসিবি ছোলা বিক্রি করছে ৭০ টাকা দরে, খোলাবাজারে এর মূল্য ৭৫ টাকা। এছাড়া সয়াবিন ৮৫ টাকার স্থলে ৯০ ও মুসুর ডাল ৮০ টাকার স্থলে ৮৫টাকা পাওয়া যাচ্ছে।

পাঁচ থেকে টাকার ব্যবধান থাকায় রোদের মধ্যে লাইনে দাঁড়িয়ে টিসিবি পণ্য নিতে অনেকেই আগ্রহী নন। তবে এ বছর খুলনায় খেজুর বিক্রি করছে না টিসিবি।

সোমবার সকাল নয়টা থেকে বিক্রি শুরুর কথা থাকলেও নির্ধারিত ১৫টি পয়েন্টের বেশির ভাগ জায়গায় সকাল ১০টা পর্যন্ত ট্রাক পৌঁছায়নি। যেসব জায়গায় ট্রাক আছে সেসব জায়গায় ক্রেতাদের তেমন সাড়া দেখা যায়নি। ট্রাকে পণ্য নিয়ে বিক্রেতাদের অলস সময় পার করতে দেখা গেছে। সকাল নয়টার পর থেকে ১০টা পর্যন্ত নির্ধারিত স্থানের জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক মোড়ে ও শান্তিধাম মোড়ে ট্রাক থাকার কথা থাকলেও দেখা যায়নি।

ট্রাকে টিসিবির পণ্য বিক্রির নির্ধারিত স্থানগুলো হচ্ছে- জেলা প্রশাসকের কার্যালয় ও বাংলাদেশ ব্যাংক মোড়, নতুন বাজার ও রূপসা ট্রাফিক মোড়, শান্তিধাম মোড় ও সাউথ সেন্ট্রাল রোড, ময়লাপোতা, নিরালা ও গল্লামারী মোড়, নিউমার্কেট, বয়রা ও বৈকালীর মোড়, খালিশপুর বিআইডিসি রোডের শিল্পাঞ্চল ও চিত্রালী বাজার এবং নতুন রাস্তা ও ফুলবাড়িগেট মোড়।

খুলনা টিসিবির আঞ্চলিক কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রত্যেক গ্রাহক পাঁচ লিটার তেল এবং তিন কেজি করে অন্যান্য পণ্য কিনতে পারবেন। ১৮ জুন পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল নয়টা থেকে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত পাওয়া যাবে এসব পণ্য।

টিসিবি খুলনার আঞ্চলিক কর্মকর্তা মো. রবিউল মোর্শেদ জানান,  ‘প্রথমদিন তাই একটু দেরি হয়েছে। দেশি চিনি ৫৫ টাকা, সয়াবিন তেল ৮৫ টাকা, মসুর ডাল ৮০ টাকা ও ছোলা ৭০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। পাঁচটি ট্রাকের মাধ্যমে ১৫টি জায়গায় এসব পণ্য বিক্রি করা হচ্ছে। খোলা ট্রাকের পাশাপাশি টিসিবির নির্ধারিত ৪৮২জন ডিলার পণ্য বিক্রি করছেন।

// ১৫-০৫-২০১৭ //