23 মার্চ 2017

রবীন্দ্রণাথের সাহিত্য চর্চার পিছনে পেরণা যুগিয়েছেন সহধর্মীনী ফেলি

150509-Commisionerখুলনানিউজ.কম:: বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আব্দুস সামাদ বলেছেন, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সাহিত্য চর্চায় জগৎ সেরা হলেও তার উদ্ভাবনী কর্মকান্ডে প্রেরণা যোগিয়েছে সুযোগ্য সহধর্মীনী মৃণালিনী দেবী ওরফে ফেলি। নিজ গহনা বিক্রি করে শান্তি নিকেতন

গড়ার কাজে সহায়তা করেছিলেন। জেলা প্রশাসন আয়োজনে শনিবার বিকালে দক্ষিণডিহি রবীন্দ্র কমপ্লেক্সে মৃণালিনী মঞ্চে অনুষ্ঠিত ৩দিন ব্যাপী রবীন্দ্র জন্ম জয়ন্তী আলোচনা অনুষ্ঠানে দ্বিতীয় দিনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। ফুলতলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুলু কিলবিস বানুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিল কলেজ অধ্যক্ষ গুলশান আরা বেগম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী। শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ আলহাজ্ব আনোয়ারুজ্জামান মোল্যা, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার কাজী জাফর উদ্দিন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে “রবীন্দ্রনাথের ধর্মচিন্তা” শীর্ষক আলোচনা করেন আমেরিকার পিচ এ্যামব্যাসেডর ও গবেষক প্রাবন্ধিক ড. মোহাম্মদ আব্দুল হাই। মুখ্য আলোচক বলেন, মানবিক ধর্মকে রবীন্দ্রনাথ তাঁর জীবনের শেষ গন্তব্যস্থল। তিনি কোন ধর্মের ব্যাপারে স্থায়ী বিশ্বাস স্থাপন করতে পারেনি। কারণ তিনি বিশ্বাস করতেন মানুষের মঙ্গলই হলো পরম ধর্ম। পরে স্থানীয় শিল্পীদের পরিবেশনায় কবিতা আবৃতি, রবীন্দ্র সঙ্গীত ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী পপির একক পরিবেশনায় উপস্থিত দর্শক শ্রতাদের মুগ্ধ করে। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন এ্যাড. মিনা মিজানুর রহমান, অনুপম মিত্র, শংকর মল্লিক প্রমুখ।

// ফুলতলা, খুলনা: ০৯-০৫-২০১৫ //