25 এপ্রিল 2017

রূপসায় কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রম শুরু

খুলনানিউজ.কম:: রূপসায় আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রনে গঠিত কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রম দীর্ঘদিন পর আজ নতুন জীবন ফিরে পেয়েছে। যার ফলে এলাকায় বিভিন্ন অপরাধ  প্রবনতা দমন করা সম্ভব হয়ে  উঠেছে। জানা যায়, গত ৭ বছর আগে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে সারা দেশে কমিউনিটি পুলিশিং ইউনিট গঠনের কার্যক্রম শুরূ হয়। এ সময় থানা পুলিশের উদ্যোগে

উপজেলায় ৫ টি ইউনিয়নে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষের সমন্বয়ে গঠন করা হয় এ কমিটি। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং সচেতন মহলের ঘাটতির কারনে গত কয়েক বছর ধরে স্থবির হয়ে পড়েছিল এ কমিটির সকল কর্মকান্ড।

শুরূতেই পুলিশিং কমিটি সক্রিয় থাকায় এলাকায় অপরাধ কর্মকান্ড কমে গেলেও আন্তে আস্তে এর কার্যক্রম ভাটা পড়তে থাকে। উপজেলা ঘুরে দেখা গেছে, এখানে পুলিশিং কার্যক্রম না থাকার ফলে এক শ্রেনীর অসাধু লোকজন যেমন হচ্ছিল লাভবান তেমনি অপরাধ প্রবনতাত্ত বাড়তেছিল। যার ফলে উপজেলার রূপসা রবের মোড়, কম্পানি রোড়, ইষ্টোন ইাউজ এলাকা, পূর্ব রূপসা বাস ষ্ট্যান্ড এলাকা, রূপালী সী ফুর্ডের সামনে, শ্রীরামপুর, রহিম নগর, সিংহের চর, সেনেরবাজার, আইচগাতি, ঘাটভোগ, জাবুসা, শিয়ালি,আলাইপুর ও চররূপসার রেল বস্তি এলাকায় অবাধে মাদক ব্যবসায়ীরা চালিয়ে আসছিল তাদের ব্যবসা। দীর্ঘদিন এ কমিটির কোন কার্যক্রম না থাকায় বর্তমান খুলনা-৪ আসনের সাংসদ এস, এম, মোস্তফা রশিদী সুজা সাধারন মানুষের শান্তির জন্য এলাকায় চুরি,ডাকাতি,ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধের হাত থেকে সাধারন মানুষকে রক্ষা করার জন্য রূপসা থানা অফিসার ইনর্চাজ(ওসি) মেছবা উদ্দিনকে পুলিশিং কমিটিকে সচল করার নির্দেষ দেন অফিসার ইনর্চাজ নির্দেষ পেয়ে অক্লান্ত পরিশ্রম করে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের  সহাতায় ও সমাজের গুনি ব্যক্তিদের নিয়ে ৫টি ইউনিয়নের ওর্য়াড পর্যায়ে পুলিশিং কমিটি গঠন করেন।

তারই ধারাবাহিকতায় উপজেলায় আইন শৃংখলার পরিস্থিতি পূর্বের থেকে যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে বলে দেখতে পাওয়া যায়। উপজেলায় যে কয়েকটি পয়েন্টে মাদক কেনা বেচাঁ হয়ে আসতেছিল তা বন্দ হয়েছে। এলাকায় এক শ্রেনীর অসাধু ব্যক্তি প্রভাব খাটিয়ে সাধারন নিরীহ মানুষের উপর নির্যাতন করে আসতেছিল। নতুন কমিটি সচল হওযায় তারা সমাজ থেকে বিতাড়িত হয়েছে। নিরীহ মানুষ আজ তাদের অধিকার ফিরে পেয়েছে। থানা পুলিশের মনিটরিং এবং পুলিশিং কমিটির সকল সদস্যদের সঠিক তদারকির কারনে আজ উপজেলায় চুরি,ডাকাতি,ছিনতাই এমনকি হত্যার মত অপরাধও  এখন অনেকাংশ কমে গেছে।

তাই উপজেলার সাধারন মানুষ এ কমিটিকে সচল রাখার দাবি জানান। এ ব্যাপারে টিএসবি ইউনিয়নের সভাপতি আজিজুল হক কাজল বলেন, দীর্ঘদিন কমিটির কার্যক্রম না থাকায় উপজেলার বিভিন্ন  এলাকায় অপরাধ চলে আসছিল। তবে পুলিশিং কমিটি চালু হবার পর অপরাধ প্রবনতা কমেছে।

উপজেলা পুলিশিং কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক আশরাফুজ্জামান বাবুল বলেন, বর্তমান সরকার সমাজের প্রত্যেক মানুষের ন্যায় বিচার ও অপরাধ কমানোর জন্য পুলিশিং কমিটি গঠন করার নির্দেষ দেন। দীর্ঘদিন বন্দ থাকার পর আজ চালু হয়েছে। কমিটি সচল থাকায়  সমাজ থেকে অনেকটা অপরাধ দুর হয়েছে।

এ ব্যাপারে  থানা অফিসার ইনর্চাজ(ওসি) মোঃ মেছবা উদ্দিন  বলেন, তিনি যোগদানের পর থেকে পুলিশিং কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং আইনশৃর্ংঙ্খলার পরিস্থিতি উন্নতি হয়েছে।

পুলিশিং কমিটির সহায়তায় সমাজের বিভিন্ন অপরাধ দমন করা সম্ভব এবং এ কমিটিকে সচল রাখার সকল ব্যবস্থা করবেন বলে তিনি জানান।

// আঃ রাজ্জাক, রূপসা: ১১-০৫-২০১৫ //