27 জুন 2017

তেরখাদায় শিশু কাশেম হত্যা মামলায় নয়জনের যাবজ্জীবন

খুলনানিউজ.কম:: খুলনা জেলার তেরখাদা উপজেলার আজগড়া গ্রামের শিশু কাশেম মল্লিক (১৩) হত্যার অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় ৯জনের প্রত্যেককে যাবজ্জীবন কারাদন্ড, ১০হাজার টাকা করে জরিামানা অনাদায়ে আরও ১বছরের কারাদন্ড প্রদান করেছেন আদালত। খুলনার জননিরাপত্তা বিঘœকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক

এস এম সোলায়মান বুধবার এ রায় ঘোষণা করেন। হত্যাকান্ডের এক যুগের বেশী সময় পর এ রায় ঘোষণা করা হলো। দন্ডপ্রাপ্তরা হলো, তেরখাদা উপজেলার আজগড়া গ্রামের জব্বার শেখ, গোলাম শেখ, করিম শেখ, সোবহান শেখ, রহিম শেখ, জলিল শেখ, সাত্তার শেখ, সাইফুল মল্লিক ও হারুন জমাদ্দার। দন্ডপ্রাপ্ত সকলেই রায় ঘোষণার সময় আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।
মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়,  আসামীদের সাথে জমিজমা সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ২০০৩ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারী রাতে তেরখাদার আজগড়া গ্রামের নিজদের বাড়ী থেকে মো. ইসরাইল মল্লিকের শিশু পুত্র কাশেম মল্লিককে অপহরণ করে দুষ্কৃতকারীরা। পরে শিশু কাশেমকে বিপ্র আজগড়া গ্রামের রথখোলা এলাকার অদূরে একটি বিলে নিয়ে শ্বাসরোধের মাধ্যমে নৃশংসভাবে হত্যা করে। পরের দিন ১৯ ফেব্রুয়ারী এলাকাবাসীর মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে শিশু কাশেমের লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় ওই দিন শিশু কাশেমের পিতা  মো. ইসরাইল মল্লিক বাদী হয়ে ২২জনের নাম উল্লেখ করে তেরখাদা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তেরখাদা থানার উপ-পরিদর্শক রেজাউল ইসলাম ২০০৪ সালের ২৪ ফ্রেব্রুয়ারী আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ২৩জন সাক্ষীর মধ্যে ১৬জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন আদালত। রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন পিপি এ্যাডঃ আরিফ মাহমুদ লিটন।

// ১৩-০৪-২০১৬ //