24 মে 2017

খুলনায় পুকুর থেকে স্বামী-স্ত্রীর লাশ উদ্ধার

160914-morodehoখুলনানিউজ.কম:: খুলনায় পুকুর থেকে ব্যবসায়ী ও তার স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের দুজনের দেহেই ক্ষতের একাধিক চিহ্ন রয়েছে। তাদেরকে খুন করে পুকুরে মরদেহ ফেলে দেয়া হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ। তেরখাদা উপজেলার ইখড়ি কাটেঙ্গা গ্রামে পাশাপাশি দুটি পুকুর

থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয় বুধবার সকালে। নিহত দুই জন হলেন, সীমানা পিলার ব্যবসায়ী স্বামী খসরুল মোল্লা ও তার স্ত্রী লিপি বেগম। তাদেরকে হত্যায় জড়িত অভিযোগে দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ। খশরুল ও লিপির সংসারে তিনটি সন্তান রয়েছে। কিছুদিনের মধ্যে আরও একটি সন্তানের জন্ম দেয়ার কথা ছিল লিপির।

স্থানীয়রা জানান, গতকাল রাতে কয়েকজনের বাসায় যাওয়ার কথা বলে ঘর থেকে বের হয়েছিলেন খসরুল ও লিপি। কিন্তু রাতে ঘরে ফেরেননি তারা। সকালে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে পুকুর থেকে উদ্ধার হয় তাদের মরদেহ।

তেরখাদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেসবাহ উদ্দিন বলেন, ‘ঈদের দিন রাতে ওই এলাকার উত্তর পাড়ার পিলার ব্যবসায়ী আরজ আলী, কামাল, তরিকুলের কাছে যাওয়ার কথা ছিল খসরুল ও লিপির। সে অনুযায়ী তারা বাড়ি থেকে বের হন। পরে তাদের আর কোনো খবর পাওয়া যায়নি। সকালে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে মরদেহ দুটি উদ্ধার করি আমরা।’

পুলিশের ধারণা, পূর্ব শত্রুতা, ছিনতাই বা অন্য কোনো কারণে এই দম্পতিকে হত্যা করা হয়েছে। এরপর মরদেহ ফেলে দেয়া হয় পুকুরে। রাতে নির্জন এলাকা হওয়ায় বিষয়টি তখন কেউ টের পায়নি বলে ধারণা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর।

সকালেই ঘটনাস্থলের আশেপাশের এলাকা থেকে কামাল ও আরজ আলীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে বলে জানান তেরখাদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পরই আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

// ১৪-০৯-২০১৬ //