27 মে 2017

ফকিরহাটে স্কুল ও কলেজ ছাত্রী অপহরণ আটক ৩

খুলনানিউজ.কম:: বাগেরহাটের ফকিরহাট মডেল থানায় স্কুল ছাত্রী ও কলেজ ছাত্রী অপহরনের অভিযোগে পৃথক দুইটি মামলা দায়ের। এরমধ্যে একটি মামলার ৩ আসামীকে পুলিশ আটক করেছে। তবে এখনও অপহৃত ২ ছাত্রী উদ্ধার হয়নি। তাদেরকে উদ্ধারের জোর চেষ্টা ও অন্যান্য আসামীদের আটক অভিযান অব্যাহত রয়েছে। পুলিশ জানায়, ১১ মার্চ বিকেল ৪টায় ফকিরহাট মহিলা কলেজ এলাকা থেকে কলেজ পড়–য়া এক ছাত্রী (১৭) অপহরন হয়েছে

এমন অভিযোগে তার পিতা আড়–য়াডাঙ্গা গ্রামের ইব্রাহিম শেখ নিজ বাদী হয়ে ফকিরহাট মডেল থানায় ৪ জনের নাম উল্ল্যেখ করে একটি অপহরণ মামলা করেন।

যার নং-১০, তারিখ-১২/০৩/২০১৭ইং। মামলার মূল আসামী কামটা গ্রামের আল-আমিন মৃধাকে পুলিশ আটক করতে সক্ষম না হলেও মামলার অন্য আসামী তার পিতা কামটা গ্রামের মুনসুর মৃধা সহ উক্ত এলাকার রুস্তুম মৃধা, মোঃ হোসেন শেখকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।

অপরদিকে, বনফুল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর এক ছাত্রী (১৪) কে অপহরনের অভিযোগে তার পিতা লালচন্দ্রপুর গ্রামের কুদ্দুস মোল্লা নিজ বাদী হয়ে ৪জনের নাম উল্ল্যেখ করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে সংশ্লিষ্ট মডেল থানায় একটি মামলা করেন।

যার নং-নং-১১, তারিখ-১২/০৩/১৭ইং। মামলার প্রধান আসামী লালচন্দ্রপুর গ্রামের শহীদুল শেখ সহ অন্য আসামীগন ছোট-বাহিরদিয়া গ্রামের মুজিবুর রহমান হাওলাদার, লালচন্দ্রপুর গ্রামের নাজমা বেগম ও আসমা বেগম কেউ আটক হয়নি।

এখনও অপহৃত কিশোরী ছাত্রী উদ্ধার হয়নি। তবে উদ্ধার ও আসামী আটকের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তবে একাধিক সূত্র জানিয়েছে উভয় ঘটনা রহস্যজনক। বিষয় দুইটি প্রেম ঘটিত কারনে উভয় ছাত্রী অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমাতে পারে বলে জানা গেছে।

// মান্না দে, ফকিরহাট: ১৪-০৩-২০১৭ //