29 জুন 2017

মোড়েলগঞ্জ ছাত্রকে পিটিয়ে অজ্ঞান করা সেই শিক্ষক বরখাস্ত

170523-Morrelgonjখুলনানিউজ.কম:: বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জ উপজেলার এসপি রাশিদিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ শ্রেণীর ছাত্রীকে বিদ্যালয় থেকে অন্যায়ভাবে বহিস্কার ও এক বেপরোয়াভাবে ছাত্রকে পিটিয়ে অজ্ঞান করার ঘটনায় শিক্ষক সমির রঞ্জন হালদারকে মঙ্গলবার সাময়ীক বরখাস্ত

করা হয়েছে। একই সাথে ৭দিনের সময় দিয়ে কারন দর্শানোরও নেটিশ দেওয়া হয়েছে ওই শিক্ষককে। সোমবার সন্ধ্যায় বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ জরুরি সভায় এসব সিদ্ধান্ত নিলে আজ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক(ভারপ্রাপ্ত) মো. রেজাউল ইসলাম তা বাস্তবায়ন করেন। পরিচালনা পরিষদের সদস্য ইউপি চেয়ারম্যান মাষ্টার আবুল খায়ের জানান, জরুরি সভায় অভিযুক্ত শিক্ষক সমির রঞ্জন অপরাধ স্বিকার করে নি:শর্ত ক্ষমা চেয়েছেন।

ভবিষ্যতে আর এমন ভুল করবেন না বলেও অঙ্গিকার করলে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা অনেকটা শাস্ত হন। এদিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছাত্র জয় মন্ডল মঙ্গলবার বাড়িতে ফিরেছে। তবে রবিবার শাসনের নামে বিদ্যালয় থেকে বের করে দেওয়া সেই মেধাবী ছাত্রীটি আজও বিদ্যালয়ে ফেরেননি।

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক অভিযোগ করে বলেন, সমির রঞ্জন শিক্ষকদের মধ্যে গ্রুপিং সৃষ্টি, ক্লাশ চলাকালীন মোবাইলে সময় কাটানো ও স্থানীয় মাদকাশক্তদের সাথে সখ্যতা রয়েছে।  

বিদ্যালয়ের সভাপতি মাষ্টার আকবর আলী হাওলাদার জানান, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে ইদানিং দুরত্বের সৃষ্টি হয়েছে। তবে যাই ঘটুক সভা ডেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত রবিবার শ্রেণিকক্ষে সহপাঠিনীর সাথে অসদাচরণের অভিযোগে ছাত্র জয় মন্ডলকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন শিক্ষক সমির রঞ্জন। একই দিনে শাসনের নামে ১০ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে বিদ্যালয় থেকে বহিস্কার করা হয়।

গোটা বিষয় সম্পর্কে জানার জন্য অভিযুক্ত সহকারি শিক্ষক সমির রঞ্জনের ০১৯১১-৮৫৭৭৬৭নাম্বার মোবাইল ফোনে কল করা হলে কলটি রিসিভ করে তিনি বলেন, ‘এটি সমির বাবুর নাম্বার নয়, রং নাম্বার’। পরে বিদ্যালয়ের অপর শিক্ষকদের সাথে কথা বলে ওই নাম্বারটি সমির রঞ্জনের বলেই নিশ্চিত হওয়া গেছে।

// মশিউর রহমান মাসুম, মোরেলগঞ্জ: ২৩-০৫-২০১৭ //