25 জুন 2017

প্রেমিকের অদ্ভুত কাণ্ড!

170423-Sumon Palখুলনানিউজ.কম:: প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন প্রেমিক। সময়মতো দেখা না করায় ক্ষুব্ধ হয়ে অদ্ভুত কাণ্ড করে বসলেন প্রেমিক! মেয়েটি কাছে আসামাত্র গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে নিজের ভালবাসার জানান দেওয়ার চেষ্টা করে! এতে তার শরীরের ৩৬ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। ওই প্রেমিকের নাম

সুমন কুমার পাল (২৪)। তিনি ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সির সিএসসি বিভাগের শিক্ষার্থী। তার বাবার নাম স্বপন কুমার পাল। বাড়ি যশোর জেলার অভয়নগরে। আর প্রেমিকার নাম নীলা (ছদ্মনাম)। তিনিও একই বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএর শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ধানমণ্ডির সোবাহানবাগের ডেন্টাল কলেজের ছাত্রী হোস্টেলের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, বেশ কিছু দিন ধরে তাদের দেখা হচ্ছিল না। তাই আজ সন্ধ্যায় সোবাহানবাগের ডেন্টাল কলেজের ছাত্রী হোস্টেলের সামনে যান সুমন। সময়মতো প্রেমিকা না আসায় ক্ষোভে আত্মহত্যার জন্য কেরোসিন নিয়ে প্রস্তুত হন তিনি। যখন প্রেমিকা এলো তখন তার সামনেই গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন। পরে স্থানীয়রা তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে রাত ৭টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

সুমন কুমারের বন্ধু কামরুল শিকদার জানান, কিছুদিন ধরে কোনো এক কারণে তাদের মধ্যে সাক্ষাৎ হচ্ছিল না। আজ সে দেখা করতে গিয়েছিল। এর আগে সে আমাকে সকালে বলেছিল, ‘আজ যাচ্ছি, ও যদি দেখা না করে তাহলে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করব।’

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ‍উপ-পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান, তাকে বার্ন ইউনিটে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

ঢামেক হাসপাতাল বার্ন ইউনিটের আবাসিক সার্জন পার্থ শংকর পাল জানান, সুমনের শরীরের ৩৬ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে।

এ ঘটনা জানার পর অনেকেই বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। ডেমরা কলেজের জীববিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক ‍সুশিলা শিউলী বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনা ঘটানো সত্যি বিস্ময়কর। ভালবাসা প্রকাশ করার অনেক মাধ্যম আছে। গায়ে আগুন দিলেই ভালবাসার প্রমাণ হয় না।

// ২৩-০৪-২০১৭ //