26 জুন 2017

ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডুতে কিশোরীর উপর অমানুষিক নির্যাতন

খুলনানিউজ.কম:: ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডুতে আসমানী নামে এক কিশোরীর শ্লীলতাহানী করতে না পেরে অমানুষিক নির্যাতন চালিয়েছে পাষন্ডরা। ঘটনাটি পল্লী কবি জসিম উদ্দিনের আসমানি না হলেও তার চেয়ে কমও নয়। নবম শ্রেণীর ছাত্রী আসমানী হরিণাকুন্ডু উপজেলার শেখপাড়া বিন্নি গ্রামের অতি দরিদ্র পরিবারের সন্তান। মা ও ছোট ভায়ের সাথে কোন রকম

খেয়ে না খেয়ে বেঁচে আছে তারা। মায়ের হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রমের বিনিময়ে নবম শ্রেণীতে পড়ার সুযোগ পেয়েছে সে। ছোট থাকতেই বাবাকে হারিয়েছে তবুও লেখাপড়া থামেনি। মায়ের আশা আসমানী লেখাপড়া শিখে পরিবারের অভাব অনটন দুর করবে। সবকিছু ঠিকঠাকই চলছিল, হঠাৎ বজ্রাঘাত যেন সব কিছু এলামেলো করে দিলো আসমানীর। গত ৪/৫ দিন আগে একই গ্রামের লম্পট সিরাজুল ও মিল্টন গভীর রাতে দরজা ভেঙ্গে আসমানীকে পাশবিক নির্যাতনের জন্য ঘরে প্রবেশ করে। আসমানি ও তার মায়ের আর্তচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে তার উপর লম্পট সিরাজুল চাপিয়ে দেয় অপবাদ। আসমানীর ঘরে নাকি অন্য কোন পুরুষ ছিলো। এই অপরাধে তার উপর চালানো হয় অমানুষিক শারীরিক নির্যাতন। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করার তিন ঘন্টা পর জ্ঞান ফেরে। এখন আসমানী ঠিকমত কথা বলতে পারছেনা, খেতেও পারছে না। ঘুমের মধ্যে কেঁপে উঠছে ভয়ে ও আতঙ্কে। এদিকে আসমানির মা রোকেয়া বেগম হরিণাকুন্ডু থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ বিন্নি গ্রামে তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পেলেও এখনো মামলা রেকর্ড হয়নি। লম্পট সিরাজুল মামলা করলে বাড়ীঘর পুড়িয়ে ছাই করে দেবে বলে হুমকি দিয়েছে। ফলে নিরাপত্তা হীনতায় চোখে-মুখে হতাশা নিয়ে আসমানির মা রোকেয়া বেগম বাড়ি ফিরতে পারছেন না। এ বিষয়ে হরিণাকুন্ডু থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক আসাদুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আসামানীদের প্রতিবেশি সিরাজুল ইসলাম বেশ কিছুদিন ধরেই তাকে উত্যক্ত করছিল। গত ৩/৪ দিন আগে আসমানীর ঘরে প্রবেশ করার সময় সিরাজুল ধরা পড়ে। বিষয়টি গ্রামে জানাজানি হয়ে গেলে সিরাজুল ও তার লোকজন আসমানীকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে চরম ভাবে নির্যাতন করে। এএসআই আসাদুজ্জামান বলেন, এ বিষয়ে একটি মামলা রেকর্ড হবে।

// কোরবান আলী, ঝিনাইদহ: ২৭-০৫-২০১৫ //


ঝিনাইদহে জামায়াতকর্মীসহ ১৮ জন আটক

খুলনানিউজ.কম:: ঝিনাইদহের বিভিন্ন গ্রামে অভিযান চালিয়ে এক জামায়াতকর্মীসহ ১৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে বুধবার ভোর পর্যন্ত এ অভিযান চলে। ঝিনাইদহ থানা সুত্রে জানা গেছে, বিভিন্ন মামলায় সদর উপজেলা থেকে ৭ জন, হরিণাকুন্ডু থেকে ২ জন, শৈলকুপা থেকে ৩ জন, কালীগঞ্জ থেকে ৪ জন ও মহেশপুর উপজেলা থেকে ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদের মধ্যে জামায়াত কর্মী তারিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে নাশকতার অভিযোগ রয়েছে। অন্যরা বিভিন্ন মামলার আসামি বলে পুলিশ জানায়। আটককৃতদের বুধবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

// কোরবান আলী, ঝিনাইদহ: ২৭-০৫-২০১৫ //