24 জুন 2017

বস্তি থেকে অস্কারের মঞ্চে

খুলনানিউজ.কম:: মুম্বাইয়ের একটি বস্তি থেকে একেবারে অস্কারের মঞ্চে চলে যাওয়া! আট বছর বয়সী সানির যাত্রাটা সিনেমার রোমাঞ্চকর কাহিনীকেও ছাড়িয়ে যায়। ‘দ্য লায়ন কিং’ ছবিটি এবার অস্কার মনোনয়ন পেয়েছে যেখানে অভিনয় করে প্রশংসা কুড়িয়েছেন সানি। তিনমাস আমেরিকার

তারা জ্বলমলে দুনিয়ায় ভ্রমণ শেষে দেশে ফিরেছেন সানি। পরিবার, আশপাশের দুনিয়া বা পুরো ভারতে সানি খ্যাতি লাভ করে ফেলেছে। ছেলের এই খ্যাতিতে আনন্দিত ও গর্বিত তার বাবা-মা ও আত্মীয়-স্বজনেরা। ‘লায়ন’ সিনেমাটিতে সানি অভিনয় করে সারো ব্রিয়ারলির ছোটবেলার চরিত্রে। ব্রিয়ারলির আত্মজীবনী ‘এ লং ওয়ে হোম’ এর উপর ভিত্তি করে সিনেমাটি তৈরি হয়। সেখানে উঠে আসে তার জীবনের কাহিনী। কিভাবে তিনি খুবই অল্প বয়সে মা থেকে বিচ্ছিন্ন হন এবং এক অস্ট্রেলিয় পরিবারে দত্তক সন্তান হিসেবে বড় হতে থাকেন। ব্রিয়ারলির জীবনের উপর ভিত্তি করে নির্মিত ছবিটি ছয়টি অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড মনোনয়ন পায় এবং দুটি বাফটা পুরস্কার জেতে।

সানি পাওয়ার এর হলিউড যাত্রাটা অসাধারণ, স্বপ্নের মতো। তার পরিবারের কোন সদস্যই মুম্বাইয়ের বাহিরে যায়নি। সে পরিবারের সবচেয়ে ছোট্ট সদস্যটি কলকাতা, ইন্দোর হয়ে অস্ট্রেলিয়া ও আমেরিকাতে ঘুরে এসেছে। আর তার ছবি দেখা হচ্ছে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে। মুম্বাইয়ের বস্তিতে এক কক্ষের বাসাতে এখনো তাকে সানির পরিবার। সে ঘরে কোন খাট নেই। ফ্লোরে মাদুর বিছিয়েই ঘুমায় পুরো পরিবার। সানির বাবা রাস্তা ঝাড়ু দেওয়ার কাজ করে। সে কাজ থেকে তাকে বাদ দেওয়া হয় নিয়মিত অনুপস্থিত থাকার কারণে। কারণ গত দুবছর সানির বিজনেস ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছেন তার বাবা দিলীপ। ছেলের সাফল্য নিয়ে বলতে গিয়ে দিলীপ বলেন, ‘আমি কখনো কল্পনা করিনি আমার ছেলে এই জায়গায় পৌছবে। আমার প্রথম সন্তান আমাকে গর্বিত করেছে।’

ছবির জন্য যখন অডিশন দিচ্ছিলো তখন সানির বয়স ছিল মাত্র পাঁচ। দু হাজার ছেলের মধ্য থেকে তাকে বাছাই করা হয় স্বতঃস্ফূর্ত অভিনয় করার জন্য। অভিনয়ের আনুষ্ঠানিক কোন শিক্ষাদীক্ষা তার ছিল না। রজনীকান্তের ছবি দেখতে প্রছন্দ করে সানি। এবং নিজেও রজনীকান্তের মতো নায়ক হতে চান বলে স্বপ্নের কথা জানান। নিজের স্বপ্নের কথা বলতে গিয়ে সানি বলেন, ‘আমি হলিউড, বলিউড সব জায়গায় অভিনয় করতে চাই।’

তিন মাস আমেরিকা থেকে ঘুরে আসার পর বিমান বন্দর থেকে শুরু করে বস্তিতে তাকে নিয়ে দিনরাত হইহুল্লুর চলছে। তার সাথে দেখা করতে আসছেন বড় বড় রাজনীতিবিদ থেকে শুরু করে কাছের দূরের আত্মীয়-স্বজন। সানিদের ঘরের সামনে একটি মঞ্চ তৈরি করে সেখানে বিভিন্ন বিখ্যাত মানুষের সাথে সানির ছবি টাঙানো হয়েছে। বারাক ওবামা, বিল ক্লিন্টন থেকে শুরু করে রেসলিং স্টার রকের (ডোয়াইন জনসন) সাথে ছবিগুলোর দিকে অবাক হয়ে দেখছে সানির খেলার সাথীরা। কেউ কেউ আঙুল তুলে দেখিয়ে দিচ্ছে, ‘এই দেখ, রকের সাথে সানি।’

সানি পাওয়ারের আলো জ্বলমল জীবন তার আশেপাশে আনন্দ ও স্বপ্ন ছড়িয়ে দিয়েছে।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

// ০৬-০৩-২০১৭ //