চার জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৪

চার জেলায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ চারজন নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার ভোর রাতে ও সোমবার গভীর রাতে নারায়ণগঞ্জ, নড়াইল, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নাটোরে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এসময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর আট সদস্য আহত হয়েছে। উদ্ধার করা হয়েছে অস্ত্র-গুলি।

আমাদের জেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর—

নারায়ণগঞ্জ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলায় র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযু‌দ্ধে আলমগীর হোসেন নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছে ২ র‌্যাব সদস্য। মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার পিরোজপুর চেঙ্গাকান্দি আগমন সিএনজি স্টেশনের পাশে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র গুলি ও ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে র‍্যাব।

র‍্যাব ১১ এর এএসপি বিল্লাল হোসেন জানান, নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযান চালানোর সময় ভোরে সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর চেঙ্গাকান্দি আগমন সিএনজি স্টেশনের পাশ থেকে আলমগীর ও তার সহযোগীরা র‍্যাবের উপর হামলা ও গুলি চালায়। র‍্যাবও পাল্টা গুলি ছুঁড়লে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় আলমগীর।

এ সময় র‍্যাব ১১ এর হাবিলদার হাবিবুর রহমান ও কনস্টেবল মিজান তালুকদার আহত হন।

তিনি জানান, আলমগীরের নামে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে বিভিন্ন থানায় তার বিরুদ্ধে ১৯টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে মাদক মামলা ১০টি। ঘটনাস্থল থেকে ১টি বিদেশি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি ও ১৫শ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

নড়াইল

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত’ নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার ভোর রাতে লোহাগড়ার পৌরসভার কচুবাড়িয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তবে নিহত ডাকাতের পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান স্যুটারগান, দুই রাউন্ড গুলি, দু’টি দা, একটি হাতুড়ি ও চারজোড়া স্যান্ডেল উদ্ধার করেছে পুলিশ।

লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রবীর কুমার বিশ্বাস বলেন, সোমবার রাত ৩টার দিকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে খবর পাই যে, পৌরসভার কচুবাড়িয়া এলাকার একটি বাঁশবাগান এলাকায় একদল ডাকাত ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে।

তিনি বলেন, খবর পেয়ে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে ডাকাতদল পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। ১০/১৫ মিনিট ধরে গোলাগুলির পর স্থানীয় লোকজনও এগিয়ে আসে।

ওসি বলেন, এসময় ঘটনাস্থল থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় ডাকাত দলের এক সদস্যকে উদ্ধার করে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, উভয়পক্ষের মধ্যে গুলিবিনিময়ের এক পর্যায়ে পুলিশ গুলিবিদ্ধ এক ডাকাতকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বুন্দকযুদ্ধের সময় লোহাগড়া থানার এসআই মাহফুজুল হাসান, এএসআই প্রলয় চক্রবর্তী, কনস্টেবল মুরাদ ও টিটু আহত হয়েছেন বলে দাবি কনে ওসি।

ওসি বলেন, আহত পুলিশ সদস্যদের লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। লাশের সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার মোবারকপুর ইউনিয়নের ত্রিমোহনী এলাকায় সোমবার রাত দেড়টার দিকে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে একজন নিহত হয়েছেন। র‌্যাবের দাবি নিহত ব্যক্তি ডাকাত দলের সদস্য।

র‌্যাব-৫ এর ডেপুটি কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল খায়ের জানান, নিয়মিত মাদকবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে র‌্যাব সদস্যরা টহলে ছিলেন। শিবগঞ্জের মোবারকপুর ইউনিয়নের ত্রিমোহনী এলাকায় ডাকাত সদস্যরা র‌্যাবের গাড়ি আটকায়। প্রথমে র‌্যাবের গাড়ি বুঝতে পারেনি। পরে বুঝতে পেরে গাড়িকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। র‌্যাবও পাল্টা গুলি করে।

এক পর্যায়ে অন্যরা পালিয়ে গেলেও একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাকে উদ্ধার করে শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। তার পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার চেষ্টা চলছে।

তিনি আরো জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, ৪ রাউন্ড গুলি, ৪টি হাসুয়া, রশি উদ্ধার করা হয়েছে।

নাটোর

নাটোরের লালপুরে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে আহাদুল ইসলাম নামে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। এ সময় দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। সোমবার মধ্যরাতে উপজেলার ঈশ্বরদী ইউনিয়নের বিজয়পুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থল থেকে ফেন্সিডিল, একটি পিস্তল এবং একটি ম্যাগাজিন উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত আহাদুল ইসলাম উপজেলার তিলকপুর গ্রামের মোমিন মন্ডলের ছেলে।

র‌্যাব-৫ সিপিসি- ২ এর কমান্ডার মেজর শিবলী মোস্তফা জানান, নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে র‌্যাবের একটি দল উপজেলার বিভিন্ন স্থানে টহল দেয়। এ সময় র‌্যাবের দলটি বিজয়পুর গ্রামের রাস্তা দিয়ে লালপুর সড়কে উঠার সময় একটি নির্জন স্থানে কয়েকজন ব্যক্তির উপস্থিতি টের পায় র‌্যাব সদস্যরা।

পরে র‌্যাব সদস্যরা ঘটনাস্থলের দিকে এগুতে লাগলে তারা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে তাদের লক্ষ্য করে।

উভয় পক্ষের গোলাগুলির মধ্যে পড়ে একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে পড়ে যায় এবং বাকিরা পালিয়ে যায়।

এ সময় র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হন। আহতদের স্থানীয় একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। পরে ঘটনাস্থল থেকে ফেন্সিডিল ও একটি পিস্তল এবং একটি ম্যাগাজিন উদ্ধার করা হয়েছে।

আহত অবস্থায় আহাদুল ইসলামকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত আহাদুল ইসলামের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ও অস্ত্র আইনে মামলা রয়েছে। মরদেহ নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে বলে র‌্যাবের এ কর্মকর্তা জানান।

এডিটর-ইন-চিফ : মাহমুদ হাসান সোহেল
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক : আবু বকর সিদ্দিক সাগর
নিউজরুম মেইল: khulnanews24@gmail.com এডিটর ইমেইল : editor@khulnanews.com
Khulna Office : Chamber Mansion (5th Floor), 5 KDA C/A, Jessore Road, Khulna 9100,
Dhaka Office : 102 Kakrail (1st Floor), Dhaka-1000, Bangladesh.
কপিরাইট © 2009-2020 KhulnaNews.com